ব্রেবোর্ন রোডে এটিএম জালিয়াতি কাণ্ডে ২ রোমানিয়ানের ৪ মাসের জেল, স্কিমিং মেশিনের সাহায্যে চলত প্রতারণা

ব্রেবোর্ন রোডের পিএনবি এটিএম জালিয়াতির ঘটনায় ২ রোমানিয়ানকে দোষী সাব্যস্ত করে ৪ মাসের কারাদণ্ড ও ৪০ হাজার টাকা জরিমানা ধার্য করল কলকাতা নগর দায়রা আদালত।
গত এপ্রিল মাসে ব্রেবোন রোর্ডে পাঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাঙ্কের একটি এটিএমে স্কিমিং ডিভাইস বসিয়ে ডেবিট ও ক্রেডিট কার্ডের পিন চুরি করে টাকা হাতানোর অভিযোগ ওঠে। এই মর্মে গত ১০ ই এপ্রিল হেয়ার স্ট্রিট থানায় অভিযোগ দায়ের করেন পঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাঙ্কের ব্রেবোর্ন রোড শাখার ম্যানেজার। অভিযোগের প্রেক্ষিতে তদন্ত শুরু করে পুলিশ। সংশ্লিষ্ট এটিএম থেকে উদ্ধার হয় একটি স্কিমিং মেশিন ও একটি পিন হোল ক্যামেরা। এটিএমের সিসিটিভি ফুটেজ পরীক্ষা করে ২ বিদেশিকে শনাক্ত করে পুলিশ। এদের মধ্যে একজনকে ওই দিনই আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ শুরু হয়। রোমানিয়ার বাসিন্দা লরেন্টু কেয়াস নামে ওই ব্যক্তিকে জেরা করে পুলিশ জানতে পারে, সে ও তার সঙ্গী আঁদ্রে লুপু মিলে এই স্কিমিং মেশিন বসিয়েছিল। অভিযুক্তকে দীর্ঘ জেরা করে রবার্ট জর্জ ও মারিউনু আলিন নামে আরও দুই জড়িতের নাম জানতে পারে পুলিশ। এরাও রোমানিয়ার বাসিন্দা। কিছুদিন আগে দিল্লি থেকে রবার্ট জর্জ ও মারিউনুকে গ্রেফতার করে কলকাতা পুলিশ। আঁদ্রে লুপুর খোঁজ মেলেনি। তার বিরুদ্ধে লুক আউট নোটিস জারি করা হয়।
২ রা অগাস্ট কলকাতার নগর দায়রা আদালতে এই মামলার শুনানিতে নিজেদের দোষ কবুল করে রবার্ট জর্জ ও মারিউনু। তাদের চার মাসের জেল ও ৪০ হাজার টাকা জরিমানা ধার্য করে আদালত।

Comments
Loading...