৫০ শতাংশ আসন চাই বাংলায়, ২০১৯ লোকসভা নির্বাচনে রাজ্য বিজেপি নেতাদের লক্ষ্যমাত্রা বেঁধে দিলেন অমিত শাহ।

আগামী লোকসভায় পশ্চিমবঙ্গের অর্ধেক আসন চাই। ২০১৯ সালের সাধারণ নির্বাচনের আগে দলের জন্য বাংলা থেকে লক্ষ্যমাত্রা স্থির করে দিলেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ। দু’দিনের সফরে বুধবার রাজ্যে এসেছেন বিজেপি সভাপতি। এদিন দুপুরে কলকাতায় পোর্ট ট্রাস্টের গেস্ট হাউসে দলের ইলেকশন ম্যানেজমেন্ট কমিটির সঙ্গে বৈঠকে তিনি নেতা নেতা-কর্মীদের উদ্দেশ্যে জানান, ১০০ শতাংশ আসনের জন্য ঝাঁপাতেই হবে, তবে ৫০ শতাংশ আসন নিশ্চিত হবে।
এদিন পোর্ট ট্রাস্টের গেস্ট হাউসের বৈঠকে বিজেপি সভাপতি সাফ জানান, অজুহাতের কোনও জায়গা নেই। জেতার জন্য যা, যা করার তার সবটাই করতে হবে। রাজ্যের শাসক দলের সঙ্গেও কোনও রকম আপোষ না করার নির্দেশ দিয়েছেন তিনি। সূত্রের খবর, বাংলা থেকে কমপক্ষে ১০ টি লোকসভা আসন নিশ্চিত করার নির্দেশ দিয়েছেন তিনি।
দলীয় নেতৃত্বকে এদিন  বিজেপি সভাপতি নির্দেশ দেন, পশ্চিমবঙ্গের গ্রামে, ব্লকে, শহরে জনসংযোগ বাড়াতে হবে। মানুষের কাছে পৌঁছে তাদের সমস্যা সম্পর্কে অবগত হতে হবে। মানুষের আস্থা অর্জন করতে হবে।  ২০১৯ লোকসভা নির্বাচনের আগে দলীয় কার্যকর্তাদের তাঁর সুস্পষ্ট নির্দেশ, ‘সম্পর্ক যাত্রা’ করতে হবে। অর্থাৎ সমস্যা বুঝে মানুষের পাশে দাঁড়াতে হবে।  রাঢ বাংলা, দক্ষিণবঙ্গ এবং উত্তরবঙ্গ, রাজ্যকে এই তিন ভাগে বিভক্ত করে দলীয় নেতা-কর্মীদের লোকসভা নির্বাচনের জন্য প্রস্তুতি শুরু করার নির্দেশ দিয়েছেন শাহ। দলের ইলেকশন ম্যানেজমেন্ট কমিটির বৈঠকে এদিন উপস্থিত রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ, রাহুল সিনহা, জয়প্রকাশ মজুমদারের মত শীর্ষ নেতাদের কাছে বিজেপি সভাপতি জানতে চান, রাজ্যে সংগঠন কোন জায়গায় দাঁড়িয়ে আছে? পঞ্চায়েত নির্বাচনে পুরুলিয়ার বলরামপুরসহ যে সব জায়গায় বিজেপি ভালো ফল করেছে সেই ধারাবাহিকতা বজায় রাখার জন্য সংগঠন কীভাবে এগোচ্ছে? যে সব আসনে ফল খারাপ হয়েছে, কেন খারাপ হয়েছে? দলীয় কর্মীরা কেন আক্রান্ত হচ্ছেন? এই সব একাধিক প্রশ্নের উত্তরও এদিন দলীয় বৈঠকে চেয়েছেন বিজেপি সভাপতি।
রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ বৈঠকের পর  বলেন, ‘পঞ্চায়েত নির্বাচনের পর তাঁরা কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের কাছে রিপোর্ট পেশ করেছিলেন। বুধবার সরাসরি সেই কথাই শুনতে চেয়েছেন অমিতজি’। এদিন বিকেলে হাওড়া শরৎ সদনে সোশ্যাল মিডিয়া কনভেনশনে অংশ নেন অমিত শাহ। বৃহস্পতিবার হেলিকপ্টারে তিনি উড়ে যাবেন বীরভূম। তারাপীঠে পুজো দেওয়ার কথা তাঁর। সেখান থেকে তিনি যাবেন পুরুলিয়ার বলরামপুরে। সেখানে বুথস্তরের কর্মীদের সঙ্গে বৈঠক করবেন তিনি। বৈঠক শেষে পুরুলিয়াতে জনসভাও করবেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি।

Comments
Loading...