বিজেপি ছেড়ে তৃণমূল ফিরে যাওয়াদের মল মূত্রের সঙ্গে তুলনা তথাগত রায়ের

এবার বিজেপি থেকে তৃণমূলে ফিরতে চাওয়া নেতাদের মল মূত্রের সঙ্গে তুলনা করলেন বিজেপি নেতা তথাগত রায়। শুক্রবার সকালে একটি টুইট করেন তথাগত বাবু। সেখানে তিনি বলেন, মল মূত্র ত্যাগ করলে মানুষ যেমন ভেঙে পড়ে না। আরও সবল হয়। তেমন তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে আসা নেতারা যদি ফের তৃণমূলে ফিরে যায়, কোনও ক্ষতি নেই, বরং লাভ। এইক্ষেত্রে তিনি তুলে ধরেন প্রয়াত সিপিএম নেতা হরেকৃষ্ণ কোঙারের একটি মন্তব্য। তিনি লেখেন, ১৯৬৪ সালে যখন কমিউনিস্ট পার্টি ভাঙে তখন সিপিআই নেতাদের সম্বন্ধে এই উক্তি করেছিলেন হরেকৃষ্ণ কোঙার।

বিধানসভা ভোটের আগে তৃণমূলের অনেক নেতা মন্ত্রী বিজেপিতে যোগ দিয়েছিলেন। ভোট মিটতেই তাঁদের মধ্যে অনেকে আবার তৃণমূলে ফিরে যেতে চাইছেন। এদের মধ্যে তৃণমূলের প্রাক্তন বিধায়ক সোনালী গুহ ও দীপেন্দু বিশ্বাস লিখিতভাবে তৃণমূলে ফিরতে চেয়েছেন।
এমনকি তৃণমূলে ফেরা নিয়ে জল্পনা চলছে রাজীব ব্যানার্জি ও মুকুলপুত্র শুভ্রাংশু রায় এবং প্রবীর ঘোষালের মতো বেশ কয়েক জন নেতার।

সূত্রের খবর, ভবানীপুর কেন্দ্র থেকে প্রার্থী হতে চেয়েছিলেন তথাগত। কিন্তু দেখা যায় এই কেন্দ্র থেকে বিজেপি প্রার্থী করেছে রুদ্রনীল ঘোষকে। ভোটের ফল বেরনোর পরই দলের বিরুদ্ধে একের পর এক মুখ খুলতে শুরু করেন তথাগত রায়।

দোলের দিন মদন মিত্রের সঙ্গে নৌকা বিহারে শ্রাবন্তী চ্যাটার্জি, পায়েল সরকারের মত বিজেপি প্রার্থীদের উপস্থিতি নিয়ে মুখ খোলেন তিনি।

রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের পাশাপাশি কৈলাস বিজয়বর্গীয়, শিবপ্রকাশ এবং অরবিন্দ মেননকে বাংলায় ভোটে হারের জন্য দায়ী করেছেন তিনি। এই চার নেতার নামের প্রথম অক্ষর ব্যবহার করে ‘কে’, ‘এস’, ‘এ’, ‘ডি’ লাগাতার আক্রমণ শানিয়েছেন তথাগত। যার জন্য তাঁকে দিল্লিতে তলবও করা হয়ে। এবার সরাসরি দলবদলুদের মল মূত্রের সঙ্গে তুলনা করলেন তথাগত রায়।

এদিনই স্বপুত্র মুকুল রায়ের তৃণমূলে ফিরে যাওয়ার কথা চলছে। তবে কি সেটা আঁচ করতে পেরেছেন তথাগত বাবু। আর তার জেরেই এই টুইট। সেটা জানা সময়ের অপেক্ষা।

Comments
Loading...