ব্যাঙ্ক অফ বরোদার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার বিষয়ে চিন্তা-ভাবনা করুক আরবিআই, নির্দেশ কলকাতা হাইকোর্টের

রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্ক অফ বরোদার বিরুদ্ধে কোনও উপযুক্ত ব্যবস্থা নেওয়া যায় কি না সে বিষয়ে চিন্তা-ভাবনা করার জন্য রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া (আরবিআই)-কে নির্দেশ দিল কলকাতা হাইকোর্ট। গত ১০ ফেব্রুয়ারি একটি মামলার শুনানিতে বিচারপতি সঞ্জীব বন্দ্যোপাধ্যায় এবং বিচারপতি কৌশিক চন্দের ডিভিশন বেঞ্চ এই নির্দেশ দিয়েছে। ব্যাঙ্ক অফ বরোদার বিরুদ্ধে হাইকোর্টে একটি মামলা করেছিল ইন্ডিয়ান অয়েল কর্পোরেশন। একটি ব্যাঙ্ক গ্যারান্টি সংক্রান্ত বিবাদের জেরে ব্যাঙ্কটির বিরুদ্ধে এই মামলা করেছিল ইন্ডিয়ান অয়েল কর্পোরেশন।
কলকাতা হাইকোর্টের দুই বিচারপতি নিজেদের রায়ে বলেছেন, ইন্ডিয়ান অয়েল কর্পোরেশনের অভিযোগের প্রেক্ষিতে রিজার্ভ ব্যাঙ্কের উচিত ব্যাঙ্ক অফ বরোদার বিরুদ্ধে উপযুক্ত ব্যবস্থা নেওয়া। প্রয়োজনে ব্যাঙ্কটির লাইসেন্স বাতিলের বিষয়টিও খতিয়ে দেখতে পারে রিজার্ভ ব্যাঙ্ক।
হাইকোর্টে ইন্ডিয়াল অয়েলের তরফে জানানো হয়েছিল, বঙ্গাইগাঁওতে একটি প্রকল্পের জন্য সিম্প্লেক্স প্রজেক্টস নামে একটি সংস্থার সঙ্গে ২০১৭ সালে চুক্তিবদ্ধ হয় ইন্ডিয়ান অয়েল কর্পোরেশন। এর জন্য সিম্প্লেক্স প্রজেক্টকে সিকিউরিটি ডিপোজিট জমা দিতে হত। বিনা শর্তে প্রায় ৬.৯৭ কোটি টাকার সেই ব্যাঙ্ক গ্যারান্টি সিমপ্লেক্সের হয়ে ব্যাঙ্ক অফ বরোদা দিতে সম্মত হয় ইন্ডিয়ান অয়েল কর্পোরেশনকে। কিন্তু ইন্ডিয়ান অয়েলের অভিযোগ, পরবর্তীকালে সিম্প্লেক্স তাদের শর্তপূরণে ব্যর্থ হলে তারা যখন সিম্প্লেক্সের হয়ে ব্যাঙ্ক অফ বরোদার কাছে সেই সিকিউরিটি ডিপোজিটের টাকা দাবি করে তখন তা দিতে অসম্মত হয় ব্যাঙ্কটি। অভিযোগ, বেআইনিভাবে সেই টাকা আটকে দেয় ব্যাঙ্ক অফ বরোদা কর্তৃপক্ষ। আরও অভিযোগ, পরে টাকা দেওয়ার সময় নানারকম শর্ত চাপানো হয় ব্যাঙ্ক অফ বরোদার তরফে। কিন্তু সিকিউরিটি গ্যারান্টি দেওয়ার সময় সেটি নিঃশর্ত বলেই দেখানো হয়েছিল। এই বিষয় নিয়েই প্রশ্ন তুলে কলকাতা হাইকোর্টে ব্যাঙ্ক অফ বরোদার বিরুদ্ধে মামলা করেছিল ইন্ডিয়ান অয়েল কর্পোরেশন।

Comments
Loading...