রামচন্দ্র ডোম, ফুয়াদ, অমিয় পাত্র, কান্তি, আভাস প্রার্থী! দ্বিধাগ্রস্থ সিপিএম, লড়লে কোন আসনে?

ব্রিগেড সমাবেশের আগেই প্রার্থী তালিকা চূড়ান্ত করা হবে

২০২১ বিধানসভায় কংগ্রেস তো বটেই, আরও একাধিক দলের সঙ্গে বৃহত্তর জোট করে লড়াইয়ের ময়দানে নামতে চলেছে বামেরা। আগামী সপ্তাহেই এই জোট পুরোদস্তুর নেমে পড়বে ভোটের ময়দানে। জোট প্রস্তুতির পাশাপাশি আলিমুদ্দিন স্ট্রিট এখন প্রচণ্ড ব্যস্ত প্রার্থী তালিকা চূড়ান্ত করতে।
সিপিএম সূত্রে খবর, গতবারের জয়ী সুজন চক্রবর্তী, অশোক ভট্টাচার্য, তন্ময় ভট্টাচার্য, আমজাদ হোসেন, মানস মুখার্জিরা যেমন প্রার্থী হচ্ছেন তাঁদের আসনে, তেমনই সুশান্ত ঘোষ সহ একাধিক জেলার নেতাকেও এবার প্রার্থী করছে আলিমুদ্দিন স্ট্রিট। সূর্যকান্ত মিশ্র চাইছেন এবার বিধানসভা নির্বাচনে একাধিক নতুন মুখ এবং কম বয়সী ছাত্র-যুব নেতাকে প্রার্থী করতে। সেই হিসেবেই জেএনইউ প্রাক্তনী ঐশী ঘোষ, দীপ্সিতা ধরকে প্রার্থী করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন সিপিএম রাজ্য নেতৃত্ব। কিন্তু আলিমুদ্দিন স্ট্রিটের শীর্ষ নেতৃত্ব এমন কয়েকজন নেতাকে প্রার্থী করা নিয়ে খানিকটা দ্বিধাগ্রস্থ রয়েছেন যাঁরা আগেরবার ভোটে লড়ে হেরে গিয়েছেন। তার মধ্যে কয়েকজন আবার সিপিএম রাজ্য সম্পাদকমণ্ডলীর সদস্যও।

[আরও পড়ুন: হাওড়ায় দীপ্সিতা, দুর্গাপুরে ঐশী, সিপিএমের প্রার্থী তালিকায় JNU নেত্রীরা]

সূত্রের খবর, বাঁকুড়ার অমিয় পাত্র, বীরভূমের রামচন্দ্র ডোম, দক্ষিণ ২৪ পরগনার কান্তি গাঙ্গুলি, কলকাতার ফুয়াদ হালিম, বর্ধমানের আভাস রায়চৌধুরী কি এবার বিধানসভা নির্বাচনে প্রার্থী হবেন তা নিয়ে ভিন্নমত রয়েছে সিপিএমের একাধিক শীর্ষ নেতার। জানা গিয়েছে, দলের রাজ্য সম্পাদক সূর্যকান্ত মিশ্র নিজে চাইছেন রাজ্য সম্পাদকমণ্ডলীর সদস্য যাঁরা রয়েছেন তার মধ্যে যত কম নেতা ভোটে লড়েন তত ভালো। সেক্ষেত্রে তাঁরা একাধিক কেন্দ্রে বেশি সময় দিতে পারবেন। ইতিমধ্যেই তিন জন সম্পাদকমণ্ডলীর সদস্যের ভোটে লড়া নিশ্চিত। তাঁরা হলেন মহম্মদ সেলিম, সুজন চক্রবর্তী এবং অশোক ভট্টাচার্য।
কিন্তু অমিয় পাত্র, রামচন্দ্র ডোম এবং আভাস রায়চৌধুরী রাজ্য সম্পাদকমণ্ডলীর সদস্য হলেও তাঁরা ভোটে লড়ুন বলে চাইছেন একাধিক সিপিএম নেতা। কারণ, তাঁরা মনে করছেন এবার কার্যত দ্বিমুখী লড়াইয়ের আবহে হেভিওয়েট এবং পরিচিত মুখের নেতাদের প্রার্থী করা দরকার। নয়তো লড়াইয়ের আগেই অপ্রাসঙ্গিক হয়ে পড়তে পারে বামেরা। সেই তত্ব থেকেই বাঁকুড়ার তালডাংরায় অমিয় পাত্র, বীরভূমের কোনও আসনে রামচন্দ্র ডোম, দক্ষিণ ২৪ পরগনার রায়দিঘীতে কান্তি গাঙ্গুলি, উত্তর ২৪ পরগনার আমডাঙায় ফুয়াদ হালিম এবং বর্ধমানের কোনও আসনে আভাস রায়চৌধুরীকে প্রার্থী করার ভাবনা চিন্তা চলছে। সূত্রের খবর, আগামী সপ্তাহেই এ ব্যাপারে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবেন দলের রাজ্য সম্পাদক সূর্যকান্ত মিশ্র এবং শীর্ষ নেতারা।

[আরও পড়ুন: যাদবপুরে সুজন, কসবায় শতরূপ, শালবণিতে সুশান্ত, শিলিগুড়িতে অশোক, প্রার্থী তালিকা চূড়ান্ত করছে আলিমুদ্দিন]

এই নেতাদের পাশাপাশি ছাত্র-যুব আন্দোলন থেকে উঠে আসা কম বয়সী নেতাদের এবার প্রার্থী করার দিকে বিশেষ জোর দিয়েছেন সূর্যকান্ত মিশ্র। বিশেষ করে কলকাতা এবং দক্ষিণবঙ্গের কিছু গুরুত্বপূর্ণ আসনে ছাত্র-যুব নেতাদের প্রার্থী করার সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত। আলিমুদ্দিন স্ট্রিট সূত্রে খবর, ব্রিগেড সমাবেশের আগেই প্রার্থী তালিকা চূড়ান্ত করা হবে। সে ব্যাপারে বিভিন্ন জেলাকে নির্দেশও পাঠানোর কাজ শুরু হচ্ছে। তবে গুরুত্বপূর্ণ আসনে সিদ্ধান্ত নেবে আলিমুদ্দিন স্ট্রিটই।

Comments
Loading...