যাদবপুরে সুজন, কসবায় শতরূপ, শালবণিতে সুশান্ত, শিলিগুড়িতে অশোক, প্রার্থী তালিকা চূড়ান্ত করছে আলিমুদ্দিন

প্রার্থী তালিকায় অগ্রাধিকার দেওয়া হবে তরুণ মুখকে

জোট নিয়ে কংগ্রেসের সঙ্গে আলোচনা যেমন এগোচ্ছে, পাশাপাশি সিপিএমের প্রার্থী তালিকা নিয়েও এগিয়ে যাচ্ছেন সূর্য, বিমান, সেলিমরা। ২৮ ফেব্রুয়ারি বাম-কংগ্রেসের ব্রিগেড সমাবেশ। সূত্রের খবর, তার আগেই প্রার্থী তালিকা সাজিয়ে ফেলতে চাইছে আলিমুদ্দিন স্ট্রিট। প্রাথমিক ভাবে ঠিক হয়েছে, যে যে আসনে ২০১৬ সালে জয় পেয়েছিলেন বাম প্রার্থীরা, তাদের মধ্যে যাঁরা এখনও দলে আছেন, তাঁদের ফের একই আসনে প্রার্থী করা হবে। পাশাপাশি বাকি আসনের ক্ষেত্রে জোর দেওয়া হবে তরুণ প্রার্থীদের উপর।
এই ফর্মুলা অনুযায়ী, যাদবপুরে সুজন চক্রবর্তী, কামারহাটিতে মানস মুখার্জি, দমদম উত্তরে তন্ময় ভট্টাচার্য, হুগলির পান্ডুয়াতে আমজাদ হোসেন, শিলিগুড়িতে অশোক ভট্টাচার্যের টিকিট একপ্রকার নিশ্চিত বলে আলিমুদ্দিন সূত্রে খবর।
সিপিএমের নেতৃত্ব সিদ্ধান্ত নিয়েছিল, এবার প্রার্থী তালিকায় অগ্রাধিকার দেওয়া হবে তরুণ মুখকে। ঠিক হয়েছে ৪০ শতাংশ প্রার্থী হবেন ৪০ বছরের নিচে। এই সিদ্ধান্ত অনুযায়ী এবার ফের ভোটের ময়দানে দেখা যাবে এসএফআই-ডিওয়াইএফআই নেতা শতরূপ ঘোষ, কৌস্তভ চ্যাটার্জিদের। জানা যাচ্ছে, এবারও কসবা কেন্দ্র থেকেই বামেদের হয়ে লড়বেন শতরূপ ঘোষ। টালিগঞ্জ কেন্দ্রে সিপিএম প্রার্থী হতে চলেছেন অভিনেতা দেবদূত ঘোষ।
এবার সিপিএম প্রার্থী হচ্ছেন সুশান্ত ঘোষও। তবে গড়বেতা নয়, প্রাক্তন পশ্চিমাঞ্চল উন্নয়নমন্ত্রী সুশান্ত ঘোষ এবার লড়তে চলেছেন পশ্চিম মেদিনীপুরের শালবণি থেকে। ক’দিন আগেই ঘরে ফিরেছেন। আর ঘরে ফেরার পর থেকেই দলের কর্মসূচিতে নিত্য দেখা যাচ্ছে সুশান্ত ঘোষকে। বড়ো বড়ো মিছিল করছেন, হামলার মুখে প্রতিরোধ হচ্ছে, এক এক করে ফেরানো হচ্ছে দখল হয়ে যাওয়া পার্টি অফিস। জঙ্গলমহলে ফের লাল পতাকা উড়ছে।
এদিকে দীর্ঘদিন বাদে আবার বিধানসভার লড়াইয়ে ফেরত আসছেন মহম্মদ সেলিম। সূত্রের খবর, হুগলি জেলার কোনও আসন থেকে সেলিম লড়বেন। মূলত তাঁকে সামনে রেখেই তৃণমূল ও বিজেপির টক্কর নেবে বামেরা।
সব মিলিয়ে ভোট ঘোষণার আগেই প্রার্থী চূড়ান্ত করে ফেলেছে আলিমুদ্দিন।

Comments
Loading...