লুঙ্গি ডান্সের সুরে ক্ষমতায় ‘লাল ফেরানো’র ডাক সিপিএমের   

‘টুম্পা সোনা’ ঝড় এখনও কাটিয়ে উঠতে পারেননি সিপিএম কর্মী সমর্থকেরা। ২৮ ফেব্র্রুয়ারি কলকাতার রাজপথে দেখা গিয়েছে ‘টুম্পা সোনার’ প্যারোডি চালিয়ে নাচতে নাচতে বাম কর্মী সমর্থকেরা ব্রিগেডে আসছেন। ভোটের মুখে বামেরা ফের নতুন প্যারোডি ‘লঞ্চ’ করল। জনপ্রিয় হিন্দি গান ‘লুঙ্গি ডান্স’ এর প্যারোডি ‘হাল ফেরাও লাল ফেরাও’ তুমুল সাড়া ফেলেছে নেট মাধ্যমে। সিপিএম সমর্থকদের পাশাপাশি সাধারণ মানুষও এখন তাড়িয়ে তাড়িয়ে উপভোগ করছেন বামেদের নতুন ভোটের গান। গানটি গেয়েছেন নীলাব্জ নিয়োগী, লিখেছেন রাহুল পাল। 

সিপিএম নেতা নীলোৎপল বসুও গানটি শেয়ার করছেন। ‘টুম্পা সোনা’ গানটি নিজের ট্যুইটারে শেয়ার করছিলেন সিপিএম নেতা সূর্যকান্ত মিশ্র। তা নিয়ে বিস্তর সমালোচনা হলেও ‘টুম্পা সোনার’ প্রভাব দেখা গিয়েছে ২৮ ফেব্র্রুয়ারির ব্রিগেডে। 

নতুন গানেও বিরোধীদের একহাত নিয়েছে সিপিএম। সারদা নারদ, কয়লা কেলেঙ্কারি থেকে শুরু করে কেন্দ্রীয় সরকারের বেসরকারিকরণের নীতি সবই ঠাঁই পেয়েছে সদ্য মুক্তি প্রাপ্ত গানে। 

‘গরিবের টাকা নিলে, সারদার ছিপে/কয়লা থেকে বালি ভাইপোরই গ্রিপে /এবার করব ওদের মাত/চোর চোর জোচ্চর কুপোকাত/হাল ফেরাও, লাল ফেরাও, লাল ফেরাও হাল ফেরাও।  

সেই সঙ্গে কেন্দ্রীয় সরকারকে তীব্র কটাক্ষ করে লেখা হয়েছে, ‘রেলও বেচে বীমাও বেচে/গ্যাসের দাম শুনে পড়ছি প্যাঁচে/ প্যান্ডামিকে বাজিয়েছি থালা/সরকার কানে ঝুলিয়েছে তালা।


[আরও পড়ুন- সপ্তাহ শেষে তিন দিনের ছুটি নিয়ে ঘুরে আসুন শান্তিনিকেতন]

একুশের হাইভোল্টেজ নির্বাচনে সিপিএমের প্রার্থী তালিকায় একঝাঁক তরুণ মুখ। নন্দীগ্রামের মত ‘হটস্পটে’ বাম যুব নেত্রী মীনাক্ষী মুখার্জিকে প্রার্থী করছে আলিমুদ্দিন স্ট্রিট। তৃণমূলের ‘খেলা হবে’ ডিজে ভার্সন, গেরুয়া শিবিরের ‘পিসি যাও’ এর পাশাপাশি এবার বামেদের ‘হাল ফেরাও লাল ফেরাও’। সবমিলিয়ে প্রতিপক্ষের অস্ত্রেই ভোটের ময়দানে তাদের কুপোকাত করতে প্রস্তুত বামেরা। সিপিএমের ‘হাল ফেরাও লাল ফেরাও’ গানের প্রভাবে আদৌ নীল বাড়িতে ‘লাল’ ফিরতে পারবে কিনা তা জানার জন্য অপেক্ষা এখন ২ মে পর্যন্ত।                                  

Comments
Loading...