দিদিকে বলো: ৫০০ দিনে উপকৃত ২৮ লক্ষ, ৮০ লক্ষ মানুষের কাছে পৌঁছেছে পরিষেবা, ট্যুইট মুখ্যমন্ত্রীর

৫০০ দিনে বাংলার দৈনন্দিন জীবনের অংশ হয়ে উঠেছে "দিদিকে বলো"

২০১৯ লোকসভা নির্বাচনে আশানরূপ ফল না হওয়ায় দিদিকে বলো কর্মসূচি গ্রহণ করেছিলেন মমতা ব্যানার্জি। সেই প্রকল্পের মাধ্যমে দলীয় কর্মীদের আরও চাঙ্গা করতে চেয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। বৃহস্পতিবার ৫০০ দিন অতিক্রান্ত “দিদিকে বলো” কর্মসূচি। এদিন ট্যুইট করে মমতা ব্যানার্জি জানান, ‘দিদি কে বলো’ র ৫০০ দিন অতিক্রান্ত করে পরিতৃপ্ত আমি। এই কর্মসূচিতে ২৮ লক্ষ মানুষ উপকৃত হয়েছেন। হেল্পলাইন নম্বর 91370 91370-এ ৮০ লক্ষেরও বেশি মানুষের সঙ্গে কথোপকথন হয়েছে। রাজ্যবাসীকে ধন্যবাদ জানাই এই প্রকল্প সমর্থন করার জন্য।

উল্লেখ্য, ৫০০ দিনে বাংলার দৈনন্দিন জীবনের অংশ হয়ে উঠেছে “দিদিকে বলো”। সাধারণ মানুষের কথা এখনও কান পেতে শুনছেন বাংলার দিদি তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি। লোকসভা ভোটে অনেক সিট হাতছাড়া হয়েছিল তৃণমূলের। একাধিক তৃণমূল নেতাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠে আসে। সেই কারণে ২০২১ বিধানসভা নির্বাচনকে পাখির চোখ করে প্রশান্ত কিশোরকে নিয়োগ করে তৃণমূল। শুরু হয় “দিদিকে বলো” কর্মসূচির পথচলা। মমতা ব্যানার্জির তরফে বলে দেওয়া হয় দল এবং নেতা কর্মীদের প্রতি সাধারণ মানুষের অভিযোগের পাশাপাশি বিভিন্ন দাবিদাওয়া তুলে ধরতে পারবেন এই হেল্পলাইনের নম্বরে।

প্রথম মাসেই ব্যাপক সাড়া মেলে। রাজ্যের প্রতিটি গ্রামে পৌছায় কর্মসূচি। সাধারণ মানুষের বাড়িতে তৃণমূল নেতাদের রাত্রিবাসের মাধ্যমে জন সংযোগের নয়া অধ্যায় শুরু হয়। সড়ক,স্বাস্থ্য, আইন-শৃঙ্খলা, শিক্ষা ইত্যাদি নানা সমস্যার কথা জানিয়ে ফোন আসে ‘দিদিকে বলো’তে। ৫০০ দিনে প্রায় ২৮ লক্ষ মানুষ উপকৃত হন এই কর্মসূচীর দ্বারা। মোট ৮০ লক্ষ মানুষের সঙ্গে কথা হয়েছে হেল্পলাইন নম্বরে।

Comments
Loading...