অসুস্থ হয়ে ঘরবন্দি, এই প্রথম প্রচারে নেই গৌতম দেব, তাঁর বক্তব্য ভিডিও রেকর্ড করে ক্যাম্পেনিং শুরু করছে সিপিএম

২০১১ সালে রাজ্যে পরিবর্তনের ভোটের আগে বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যের উপস্তিতি সত্ত্বেও তিনিই ছিলেন সিপিএমের প্রধান স্টার ক্যাম্পেনার। তৃণমূলের কুপন বিতর্ক প্রচারে এনে সেবার শোরগোল ফেলে দিয়েছিলেন রাজ্যে।
তিনি গৌতম দেব। তাঁর দেড়-দু’ঘন্টা ব্যাপী সাংবাদিক বৈঠকই ২০১১ সালে ভোটের আগে ছিল সিপিএম কর্মী-সমর্থকদের কাছে একমাত্র অক্সিজেন। তারপর ২০১৪ সালে লোকসভা নির্বাচনের আগে তিনিই প্রথম প্রচারে এনেছিলেন সারদা-রোজভ্যালি সহ একাধিক চিট ফান্ড নিয়ে রাজ্যে শাসক দলের বিরুদ্ধে অভিযোগ। ২০১৬ সালে অসুস্থ শরীরেও জনসভা করেছেন রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায়। সেই গৌতম দেবই এবার অসুস্থ হয়ে ঘরবন্দি। বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যের মতোই এবার দেশের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ নির্বাচনে প্রচারে নেই গৌতম দেব।
তবে একেবারেই নেই বললেও পুরোপুরি ঠিক বলা হয় না। সিপিএমের প্রচারে আসছেন গৌতম দেব। বাড়ি থেকে বেরোতে পারছেন না তো কী? গৌতম দেবের বার্তা ভিডিও রেকর্ড করে প্রচারে নামছে উত্তর ২৪ পরগনা সিপিএম।
১৪ ই এপ্রিল, রবিবার গৌতম দেবের সল্টলেকের বাড়িতে তাঁর বক্তব্য বা ইন্টারভিউ রেকর্ড করা হয়েছে জেলা পার্টির পক্ষ থেকে। সেখানে এসেছে তৃণমূল-বিজেপির বিরুদ্ধে বক্তব্য, সারদা-নারদা নিয়ে রাজ্যের শাসক দলের বিরুদ্ধে অভিযোগ। এসেছে রাজ্যের সামগ্রিক পরিস্থিতি। সাধারণ মানুষের কাছে গৌতম দেব আহ্বান জানিয়েছেন বামপন্থীদের শক্তিবৃদ্ধি করতে। পাশাপাশি, দলের নেতা-কর্মীদের জন্যও রয়েছে স্পষ্ট বার্তা, নির্বাচনে তাঁদের কী করতে হবে তা নিয়ে। প্রায় ৮-১০ মিনিট করে আলাদা-আলাদা বিষয়ের ওপর বক্তব্য রেখেছেন গৌতম দেব।

এখন ভিডিও এডিটিংয়ের কাজ চলছে। দু’তিন দিনের মধ্যেই আলাদাভাবে এক এক বিষয়ে তাঁর বক্তব্য উত্তর ২৪ পরগনা জেলার ফেসবুক পেজে আপলোড করা হবে। প্রচার করা হবে হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপেও।
উত্তর ২৪ পরগনা জেলা সিপিএমের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক পলাশ দাস জানান, যেহেতু গৌতম দেব বেরোতে পারছেন না, তাই আমাদের জেলার সোশ্যাল মিডিয়া ইউনিটের পক্ষ থেকে তাঁর একটা ইন্টারভিউ করা হয়েছে লোকসভা ভোটকে মাথায় রেখে। সেটাই বিভিন্ন পার্টে ভাগ করে ফেসবুক, হোয়াটসঅ্যাপ সহ সোশ্যাল মিডিয়ার বিভিন্ন প্ল্যাটফর্মে প্রচার করা হবে।
রাজ্যের সব জেলার মধ্যে উত্তর ২৪ পরগনায় সবচেয়ে বেশি আসন রয়েছে, ৫ টি। অর্জুন সিংহের তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ থেকে শুরু করে বসিরহাট, বনগাঁয় বিজেপির শক্তিবৃদ্ধি সব মিলে সিপিএমের কাছে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ এই জেলা। সেখানে গৌতম দেবের ভিডিও বার্তা সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে প্রচার শুরু হলে তা দলের কর্মী-সমর্থক তো বটেই, সাধারণ মানুষের মধ্যেও প্রভাব ফেলবে বলে মনে করছেন জেলা সিপিএম নেতৃত্ব।

Comments
Loading...