কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়েও সমাবর্তনে বিক্ষোভের মুখে রাজ্যপাল, অংশ না নিয়েই ফিরে গেলেন ক্ষুব্ধ জগদীপ ধনখড়

যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের ঘটনার পুনরাবৃত্তি ঘটল মঙ্গলবার কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাবর্তনস্থল নজরুল মঞ্চে। পড়ুয়াদের বিক্ষোভের জেরে রাজ্যপাল তথা আচার্য জগদীপ ধনখড় সমাবর্তনে থাকতেই পারলেন না। একদল পড়ুয়া তাঁর গাড়ি ঘিরে তুমুল বিক্ষোভ দেখান কালো পতাকা হাতে নিয়ে। তাঁদের হাতে ছিল ‘নো সিএএ’, ‘নো এনআরসি’ লেখা প্ল্যাকার্ড। মুখে ছিল স্লোগান, বিজেপির দালাল রাজ্যপাল ফিরে যাও। অনেকক্ষণ তিনি গাড়ির ভিতরে বসে থাকেন। তারপর মঞ্চের গ্রিন রুম দিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেন। তখন বিক্ষোভকারীরাও তাঁর পিছু নেন। পুলিশ এবং তাঁর ব্যক্তিগত নিরাপত্তারক্ষীরা রাজ্যপালকে ঘিরে রাখেন। তিনি অবশ্য গ্রিন রুমে গিয়ে অতিথিদের সঙ্গে কথা বলেন। পড়ুয়ারা বলেন, যতক্ষণ না রাজ্যপাল ফিরে যাবেন, ততক্ষণ আমাদের বিক্ষোভ চলবে। উনি বিজেপির দালাল। তাঁর হাত থেকে আমরা ডিগ্রি নেব না। মঞ্চের সামনে দাঁড়িয়েও পড়ুয়াদের স্লোগান দিতে দেখা যায়। মঞ্চে তখন ডি লিট নেওয়ার জন্য উপস্থিত নোবেলজয়ী অর্থনীতিবিদ অভিজিৎ বিনায়ক ব্যানার্জি। মঞ্চ থেকে উপাচার্য সোনালি চক্রবর্তী ব্যানার্জি ছাত্রদের বিক্ষোভ থামাতে অনুরোধ করেন। কিন্তু তা উপেক্ষা করেই ছাত্ররা বিক্ষোভ চালাতে থাকেন। বেলা দেড়টা নাগাদ রাজ্যপাল ফিরে যান। তার পর শুরু হয় সমাবর্তনের কাজ। পরে তিনি একাধিক ট্যুইট করে এই ঘটনার নিন্দা করেন। তবে তিনি নোবেলজয়ীর প্রশংসাপত্রে স্বাক্ষর করেন এবং ট্যুইটে তাঁর উচ্ছ্বসিত প্রশংসা করেন।

Comments
Loading...