সাথ দিল স্বাস্থ্যসাথী, ভেলোরে হল অপারেশান, দিদির প্রশংসায় সিপিএম সমর্থক পরিবার

স্বাস্থ্যসাথী কার্ডে শুধুমাত্র বাংলাতেই পরিষেবা মিলছে না। ভিন রাজ্যেও পরিষেবা পাওয়া যাচ্ছে। জ্বলন্ত উদাহরন খেজুরির হেঁড়িয়া গ্রাম পঞ্চায়েতের মুকুটশীলা গ্রামের গৃহবধূ প্রিয়াঙ্কা বাগ। তামিলনাড়ুতে গিয়ে তিনি স্বাস্থ্যসাথী কার্ড দেখিয়ে বিনামূল্যে চিকিৎসা পেয়েছেন। এলাকার সিপিএম সমর্থক পরিবারের সদস্য প্রিয়াঙ্কা ২ লক্ষ ৭০ হাজার টাকার অপারেশন বিনামূল্যে করিয়ে এখন পুরোপুরি সুস্থ।

পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে, গত বছর বাড়ির মধ্যে পড়ে গিয়ে স্পাইনাল কর্ডের দু’পাশের হাড় ভেঙে যায় প্রিয়াঙ্কার। বিভিন্ন জায়গায় চিকিৎসা করানোর পর কোনও উন্নতি তো হয়নি, উলটে শয্যাশায়ী হয়ে পড়েন তিনি। বাধ্য হয়ে স্ত্রীকে নিয়ে ভেলোর যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেন পেশায় পশু চিকিৎসক ও রেশন ডিলার তরুনকুমার বাগ।

ভেলোরের ক্রিস্টান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের পক্ষ থেকে জানানো হয়, অপারেশন করতে হবে, খরচ হবে ২ লক্ষ টাকা ৭০ হাজার টাকা। টাকা জোগার করতে হিমশিম খেয়ে যান পরিবারের সদস্যরা।

[আরও পড়ুন- আচমকা বন্ধ কেরোসিন সরবরাহ, বিপর্যয়ের মুখে বাংলার রেশন ব্যবস্থা]

এরপরই স্বাস্থ্যসাথী কার্ডের কথা মনে পড়ে প্রিয়াঙ্কার পরিবারের। প্রথমে ভাবা হয়েছিল, ওই কার্ডের পরিষেবা হয়ত ভিন রাজ্যে মিলবে না। কিন্তু হাসপাতালে ওই কার্ড দেখানো হলে সহজে পরিষবা পেয়ে যান প্রিয়াঙ্কা। গত বৃহস্পতিবার স্পাইনাল কর্ডে অপারেশন হয় তাঁর। এর জন্য একটাকাও খরচ হয়নি বলেই জানিয়েছেন পরিবারের সদস্যরা। অপারেশনের পর প্রিয়াঙ্কা ভালো আছেই বলে জানিয়েছেন হাসপাতালের চিকিৎসকরা। খুব দ্রুত তিনি হাঁটাচলা করতে পারবেন বলে জানা গিয়েছে।

এই প্রসঙ্গে হেঁড়িয়া গ্রাম পঞ্চায়েতের সিপিএমের প্রাক্তন প্রধান মিনতি বাগ তথা প্রিয়াঙ্কার পরিবারের সদস্য রাজ্য সরকারকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন। স্বাস্থ্য সাথী কার্ড নিয়ে বিরোধীদের অপপ্রচারের নিন্দা করেছেন তিনি।

রাজ্য সরকারের স্বাস্থ্যসাথী কার্ড থাকা স্বত্ত্বেও চিকিৎসা মিলছে না বলে বারবার অভিযোগ তুলছে বিরোধীরা। অনেক হাসপাতাল রোগীদের ফিরিয়ে দিচ্ছে বলে অভিযোগ। এইসব অভিযোগ উড়িয়ে দিয়ে নজির গড়ল ভেলোর।

 

Comments
Loading...