প্রকাশ্যে ধর্ষণের হুমকি! ইমনের যোগাসনের ছবিতে কু-রুচিকর মন্তব্য এক নেটাগরিকের

চলমান লকডাউনে সবাই গৃহবন্দি। কেউ লম্বা অবসরকে ভাল-মন্দ রান্ন আর খাওয়ার মন দিয়েছেন। কেউ শরীর ও মন সুস্থ রাখতে রোজ নিয়ম করে শরীর চর্চা করছেন। সেদিক থেকে এই মুহূর্তে শরীর চর্চায় মন দিয়েছে টলিউডের জনপ্রিয় গায়িকা ইমন চক্রবর্তী। শুক্রবার সেই যোগাসনের কিছু মুহূর্ত স্যোশাল মিডিয়ায় অনুরাগীদের সঙ্গে ভাগ করে নেন তিনি। কিন্তু সেখানে এক নেটাগরিক তাঁকে পরোক্ষ ভাবে ধর্ষণের হুমকি দেন।

সেই ব্যক্তির মন্তব্য চোখে পড়তেই অসংখ্য নেটাগরিকের প্রতিবাদ করেছেন। ইমনের হয়ে তাঁর অনুরাগীরাই মুখ খুলেছেন। ইতিমধ্যেই ওই অশ্লীল মন্তব্যের জন্য কলকাতা পুলিশকে সেখানে ট্যাগ করে কড়া পদক্ষেপ নেওয়ার আর্জি জানিয়েছেন ইমন। তবে তাতে কতটা কাজ হবে, তা নিয়ে ধোঁয়াশায় ইমন।

কারণ ছেলেটি এই দেশের বাসিন্দা নয়। বাংলাদেশে থাকেন। মন্তব্য বাক্সেই কেউ কেউ লিখেছেন, এই ব্যক্তি সিলেটে থাকেন। তাই সেখানকার পুলিশের কাছে অভিযোগ জানানোর পরিকল্পনা করেছেন ইমনের বাংলাদেশবাসী অনুরাগীরা।

সাধারণ মানুষের মানসিকতা দিন দিন নিম্ন থেকে নিম্নতর হচ্ছে। আজ একজনকে শাস্তি দিলে, কাল আরও ১০ জন আসবে মহিলাদের নিয়ে কু-মন্তব্য করতে। ইমন জানিয়েছে, তিনি রোজ যোগাসন করছেন মনে শান্তি আনার জন্য। নিজের মধ্যে পজিটিভ এনার্জি গড়ে তোলার জন্য। তাঁর মতে এ ধরনের কুরুচিকর মন্তব্যে পাত্তা না দেওয়াই ভাল।

ঘূর্ণিঝড় যশ চলে যাওয়ার পর, যশ বিধবস্থ এলাকায় প্রায় প্রতি দিনই ত্রাণ বিলি করতে যাচ্চেন ইমন। রবিবারও সুন্দরবন যাওয়ার কথা রয়েছে। মানুষকে সাহায্য করে তিনি আনন্দে আছেন। ফলে এই মানসিকতার মানুষের জন্য থানা-পুলিশ করারও ইচ্ছা নেই বলে জানিয়েছেন ইমন। কিন্তু ইমনের মনে ভয়, এতো শুধু তাঁকে নিয়ে বলা হচ্ছে তা নয়, সমস্ত নারীজাতির প্রতি এই ধরনের মন্তব্য বা হুমকি আসছে প্রতিনিয়ত। এধরনের নোংরা চিন্তাভাবনার মানুষগুলি থেকে এড়িয়ে চলার বার্তা দিয়েছেন ইমন চক্রবর্তী।

Comments
Loading...