প্রকৃত নেতা হতে গেলে ইউ টার্ন নিতেই হবে, হিটলারের প্রসঙ্গে টেনে সমালোচকদের জবাব দিলেন ইমরান

সাম্প্রতিককালে পাকিস্তানের বিরোধী দলের নেতারা একাধিকবার অভিযোগ করেছেন, ইমরান বারবার তাঁর সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করেন এবং প্রধানমন্ত্রী হওয়ার আগে নিজের দেওয়া প্রতিশ্রুতি থেকে সরে যাচ্ছেন। বিরোধী দলের অনেকে তাই প্রধানমন্ত্রী হওয়ার কয়েক মাসের মধ্যেই ইমরানকে ‘পাল্টিবাজ রাজনীতিবিদ’ বলেও টিপ্পনি কাটতে শুরু করেছেন। শনিবার তার জবাব দিলেন প্রাক্তন ক্রিকেটার এবং পাকিস্তানের নয়া প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। বললেন, ‘প্রকৃত নেতা সব সময় অবস্থা এবং বাস্তব পরিস্থিতি বুঝে নিজেকে বদল করেন।
সেই সঙ্গে ইমরান আরও বলেন, যে সব নেতা সময় মতো নিজের অবস্থান থেকে সরে আসতে পারেন না, তাঁরা কখনওই প্রকৃত নেতা নন। শনিবার পাকিস্তানের ইসলামাবাদে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে বেশ কয়েকজন সাংবাদিক তাঁর সঙ্গে সৌজন্যমূলক সাক্ষাৎ করতে গেলে, আলোচনার সূত্র ধরে এই মন্তব্য করেন পাকিস্তানের নতুন প্রধানমন্ত্রী। সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা প্রসঙ্গে ইমরান বলেন, যে কোনও দেশে যে কোনও সময়ে এমন পরিস্থিতি আসতেই পারে, যখন সে দেশের নেতাকে কয়েক ধাপ নেমে গিয়ে অথবা সরে এসে বাস্তবের প্রয়োজন অনুসারে ইউ-টার্ন নিতে হতেই পারে। কিন্তু সেই অবস্থায় যিনি সেটা করতে দ্বিধা করেন বা নারাজ হন, তিনি কোনও নেতাই নন।
এই বক্তব্যের পাশাপাশি ইমরান উদাহরণ হিসেবে জার্মান নেতা অ্যাডলফ হিটলার ও ফ্রান্সের নেপালিয়ন বোনাপার্টের প্রসঙ্গে টেনে আনেন। বলেন, রাশিয়ার সঙ্গে যুদ্ধে হিটলার ও নেপোলিয়ন দু’জনই পরাজিত হয়েছিলেন। কারণ তাঁরা পরিস্থিতি বুঝে তাঁদের কৌশল পরিবর্তন করেননি। ফলশ্রুতিতে তাঁদের সেনার ভাগ্যে জুটেছিল নির্জন দ্বীপে কারাবাস। প্রকৃত নেতার কাজ হল সময় এবং পরিস্থিতির দিকে সজাগ দৃষ্টি রাখা। নেতার দায়িত্ব ঠিক ঠিকভাবে পালন করতে গেলে সময় ও অবস্থার দাবি বুঝতে হবে। দায়িত্ব সঠিকভাবে পালনের প্রয়োজনে এবং জাতির স্বার্থে নেতাদের উচিত দরকারে নিজের পুরনো অবস্থান থেকে সরে আসার জন্য প্রস্তুত থাকা।

Comments
Loading...