বালিগঞ্জে প্রচারে গরিবের ডাক্তার, ভোটারের নিমন্ত্রণে বাড়ি গিয়ে খেলেন প্রাতঃরাশ

বালিগঞ্জে এবার বাম প্রার্থী গরিবের ডাক্তার। নাম ঘোষণা হওয়ার পরই বাড়ি বাড়ি প্রচারে নেমে পড়েছেন গরিবের ডাক্তার বলে পরিচিত ফুয়াদ হালিম।

একুশের ভোটে যখন তারকা আর মহাতারকার ছড়াছড়ি তখন ফুয়াদ হালিম সেই গোত্রের মানুষ, যাঁরা মানুষের পাশে থাকেন সারা বছর। বালিগঞ্জের সিপিএম প্রার্থী ফুয়াদ তাই এই কেন্দ্রের ঘরের লোক। প্রচার পরিকল্পনা সাজান হয়েছে সেকথা মাথায় রেখেই। শনিবার সোশ্যাল মিডিয়া ছেয়ে যায় ফুয়াদ হালিমের একটি ছবিতে। সেখানে দেখা যাচ্ছে, একটি বাড়িতে বসে প্রাতঃরাশ সারছেন গরিবের ডাক্তার। গলায় লাল স্কার্ফ।

বাংলায় ভোট প্রচারে এসে দলিত-আদিবাসীদের বাড়িতে খেতে দেখা যাচ্ছে বিজেপির তাবড় নেতাদের। যা নিয়ে কটাক্ষ করতে ছাড়েননি মমতা ব্যানার্জি। এবার প্রকাশ্যে এলো ফুয়াদের প্রাতঃরাশের ছবি। রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকরা বলছেন, দুই ছবির পার্থক্য আকাশ পাতাল। প্রাতঃরাশ সারার সময় ফটো শিকারিরা ছিলেন না আশেপাশে। ফুয়াদ বলছেন, এভাবে অন্যের বাড়িতে খাওয়া বামপন্থীদের কাছে নতুন কোনও ব্যাপার না। মানুষ ভালবেসেই বামপন্থীদের বাড়িতে ডেকে সামান্য খাওয়ান। এটাই ভালবাসা।

লকডাউন চলাকালীন সামান্য টাকায় কিডনি ডায়ালিসিস করে সাড়া ফেলে দিয়েছিলেন ডাক্তার ফুয়াদ। বাম আমলে পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভার দীর্ঘদিনের স্পিকার হাসিম আব্দুল হালিমের ছেলে ফুয়াদ পেশায় একজন ডাক্তার আর নেশায় বামপন্থী। এর আগেও ভোটে দাঁড়িয়েছেন। তবে জয় আসেনি। তা বলে হাল ছাড়েননি আজন্ম বামপন্থী ফুয়াদ হালিম। এবার আবার ভোটে লড়ছেন তিনি। বালিগঞ্জ কেন্দ্রে তাই সকাল থেকে রাত ছুটছেন ফুয়াদ। ফল কী হবে? পারবেন সুব্রত মুখার্জির মতো দাপুটে প্রার্থীকে হারিয়ে বিধানসভায় যেতে? উত্তর মিলবে ২ মে ভোট বাক্স খোলার পর।

[আরও পড়ুন- সিঙ্গুরে মনোনয়নে বাম-চমক! ইচ্ছুক কৃষককে নিয়ে মনোনয়ন পেশ সিপিএমের সৃজনের]

Comments
Loading...