দেশের মধ্যে নিরাপদতম শহর কলকাতা, গত ৪ বছরে অপরাধ কমেছে ৩১ শতাংশ, জানাল এনসিআরবি

দেশের ১৯ টি শহরের মধ্যে সবচেয়ে নিরাপদ কলকাতা, গত ৪ বছরের মধ্যে শহরে অপরাধের ঘটনা কমেছে প্রায় ৩১ শতাংশ। এমনই তথ্য জানা গেল ন্যাশনাল ক্রাইম রেকর্ডস ব্যুরোর (এনসিআরবি) সাম্প্রতিক রিপোর্টে।
দেশের অপরাধ সংক্রান্ত ২০১৭ সালের এনসিআরবি রিপোর্ট গত সোমবারই প্রকাশ্যে এসেছে। সেখানে দেখা যাচ্ছে, ভারতের চারটি মেট্রো শহরসহ মোট ১৯ টি শহরের মধ্যে কলকাতাই নিরাপদতম। প্রতি ১ লক্ষ জনসংখ্যার মধ্যে কলকাতায় অপরাধের সংখ্যা সবচেয়ে কম বলে জানাচ্ছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের অধীনস্থ এনসিআরবি-র রিপোর্ট। এর আগে কেরলের কোয়েম্বাটুর ছিল প্রথম স্থানে।
এনসিআরবির সাম্প্রতিক রিপোর্ট বলছে, প্রতি ১ লক্ষ জনসংখ্যার বিচারে কলকাতার অপরাধের হার ১৪১.২। যেখানে ২০১৬ সালে ছিল ১৫৯.৬। যেখানে প্রতি ১ লক্ষ্যে দেশের ১৯ টি প্রধান শহরের গড় অপরাধের হার ৪৬২.২ শতাংশ, সেখানে কলকাতার এই হার বেশ চমকপ্রদ। রিপোর্ট বলছে, গত ৪ বছরে কলকাতায় অপরাধের হার উল্লেখযোগ্যভাবে কমছে। ২০১৪ সালে কলকাতায় মোট মামলার সংখ্যা ২৬ হাজার ১৬১ টি। সেখান থেকে ২০১৭ সালে পৌঁছেছে ১৯ হাজার ৯২৫-এ। অর্থাৎ, ৪ বছরের মধ্যে রাজ্যের রাজধানী শহরে ৩১.৩ শতাংশ অপরাধের হার কমেছে। পাশাপাশি, অন্যান্য শহরের তুলনায় মহিলার উপর নির্যাতনের ঘটনাও এই শহরে বেশ কম। এনসিআরবি-র রিপোর্ট বলছে, যেখানে দেশের রাজধানী দিল্লিতে ২০১৭ সালে ১ হাজার ১৭০ টি ধর্ষণের মামলা দায়ের হয়েছে। মহিলাদের পিছু নেওয়া বা বিরক্ত করার অভিযোগে মামলা হয়েছে ৪৭২ টি। সেখানে কলকাতায় ওই বছরে মোট ১৫ টি ধর্ষণের মামলা দায়ের হয়েছে। এবং মহিলাদের পিছু নেওয়া বা বিরক্ত করার মতো মামলা দায়ের হয়েছে ৫৩ টি।
এদিকে রাজ্যভিত্তিক অপরাধের তুলনা করলেও অনেক ক্ষেত্রে অপরাধের সংখ্যা বেশ কমেছে এ রাজ্যে। এনসিআরবির ২০১৬ সালের রিপোর্টে মানব পাচারের ঘটনায় প্রথম স্থানে ছিল পশ্চিমবঙ্গ। সেখান থেকে ২০১৭ সালের রিপোর্টে পাঁচে নেমেছে এ রাজ্য। শিশু ও মহিলা পাচারের ঘটনায় শীর্ষে এখন মহারাষ্ট্র। পাশাপাশি, রাজ্যভিত্তিক মামলার বিচারে আগের চেয়ে কম সংখ্যক মামলা দায়ের হয়েছে পশ্চিমবঙ্গে। শুধুমাত্র অ্যাসিড আক্রমণ (১৯ টি), স্বামীর বিরুদ্ধে নির্যাতনের মামলা (১৬,৮০০) এবং ধর্ষণের চেষ্টার (১,২২৫) মতো অভিযোগ আগের চেয়ে এ রাজ্যে বেড়েছে বলে প্রকাশ ২০১৭ সালের এনসিআরবি-র রিপোর্টে।

Comments
Loading...