বিজেপির কাজ করার জন্য রাজ্যপাল পদ নয়, তৃণমূলের পাশে দাঁড়িয়ে ধনখড়কে আক্রমণে  বিমান বসু

রাজ্যপালের ভূমিকার তীব্র সমালোচনা করলেন বামফ্রন্টের চেয়ারম্যান বিমান বসু। বুধবার সাংবাদিক বৈঠকে বিমান বসু অভিযোগ করেন, রাজ্যপাল তাঁর সাংবিধানিক সীমা লঙ্ঘন করছেন। রাজ্যপাল সব জায়গাতেই বিজেপি নেতাদের সঙ্গে করে নিয়ে ঘুরেছেন। এটা তো ঠিক না।

জগদীপ ধনখড়কে বর্ষীয়ান রাজনীতিকের কটাক্ষ, রাজ্যপালের পদটা বিজেপির জন্য নয়। কিন্তু রাজ্যপাল বিজেপির প্রতিনিধি হয়ে কাজ করছেন। বিমান বাবু বলেন, রাজ্যপাল বিভিন্ন জায়গায় ঘুরছেন। তাঁর ঘোরা নিয়ে কিছু বলার নেই কিন্তু সঙ্গে সবসময় বিজেপির নেতারা কেন? আমাদের যারা মার খেয়েছে তাদের সঙ্গে কেন কথা বলবেন না রাজ্যপাল? প্রশ্ন বামফ্রন্ট চেয়ারম্যানের।

তৃণমূলের পাশাপাশি বাম নেতার রাজ্যপালের ভূমিকা নিয়ে এরকম কঠোর সমালোচনা যথেষ্ট তাৎপর্যপূর্ন বলে মনে করছেন রাজনৈতিক মহলের একাংশ। ফ্রন্টের বৈঠকেও রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়ের রাজনৈতিক ভূমিকা নিয়ে কথা হয়েছে বলে জানা যাচ্ছে।

রাজ্যপাল তাঁর তিন দিনের দিল্লি সফরে কেন্দ্রীয় ইস্পাতমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করেন। মানবাধিকার কমিশনের প্রধানের সঙ্গেও দেখা করার কথা আছে রাজ্যপালের।

কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে তাঁর কখন দেখা হবে তা এখনও জানা যায়নি। এবারের দিল্লি সফরে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এবং রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দের সঙ্গেও দেখা করার কথা রয়েছে বলে খবর।

রাজ্যপালের দিল্লি সফর নিয়ে ইতিমধ্যেই কটাক্ষ করে ট্যুইট করেছেন তৃণমূল সাংসদ মহুয়া মৈত্র।

ট্যুইটে বিঁধেছেন যুব তৃণমূল সভানেত্রী সায়নী ঘোষও।

রাজ্যপালকে আক্রমণ করেছেন সিনিয়ার নেতা সৌগত রায়। এবার রাজ্যপালকে বিজেপির লোক বলে আক্রমণ করল বামেরাও।

Comments
Loading...