মহাকুম্ভে করোনা পরীক্ষা নিয়ে বড় কেলেঙ্কারির ইঙ্গিত, নতুন করে তদন্ত

হরিদ্বারে মহাকুম্ভে করোনা পরীক্ষা নিয়ে নতুন করে তদন্তের নির্দেশ দিল কর্তৃপক্ষ। দায়িত্বপ্রাপ্ত দুটি বেসরকারি ল্যাবরেটরির স্যামপ্লিং, সোয়াব সংগ্রহ, কোভিড 19 পরীক্ষা এবং তথ্য সরবরাহের রেকর্ড খতিয়ে দেখা হবে।

চলতি বছর হরিদ্বারে মহাকুম্ভে ভক্ত সমাগম দেখে চমকে উঠেছিল বিশ্ব। করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে যখন দেশে হাহাকার। একদিনে করোনা সংক্রমিত হচ্ছেন লক্ষ লক্ষ মানুষ। তখন উত্তরাখণ্ডের হরিদ্বারে মহাকুম্ভের পুণ্যস্নানে অংশ নিয়েছেন হাজার হাজার ভক্ত। মাস্কের বালাই নেই। নেই দূরত্ব বিধির পরোয়া।

ভারতে করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ের ভয়াবহতার নেপথ্যে কুম্ভের অবদান বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার রিপোর্টেও উঠে এসেছে। সেই কুম্ভ মেলাতেই বড় নয়ছয়ের অভিযোগ। পুণ্যস্নানের জন্য করোনা পরীক্ষা নেগেটিভ রিপোর্ট বাধ্যতামূলক করা হলেও, তা সঠিকভাবে মানা হয়নি বলে অভিযোগ উঠেছে। তার জেরেই নতুন করে তদন্তের নির্দেশ।

এবার মহাকুম্ভের সময় করোনা পরীক্ষা নিয়ে তদন্তের নির্দেশ দেওয়া হল। কুম্ভ মেলার হেলথ অফিসার অর্জুন সিংহ সেঙ্গার জানিয়েছেন, মেলায় কোভিড পরীক্ষার জন্য যে ল্যাবগুলিকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছিল, সেগুলোর বিরুদ্ধে সঠিক রিপোর্ট না দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। এই নিয়ে তদন্তের জন্য ৪ সদস্যের কমিটি গঠন করা হয়েছে।

তিনি জানিয়েছেন, এই বিষয়টি তদন্ত চলছে, দোষীদের বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া হবে। কুম্ভ মেলা কর্তৃপক্ষ করোনা পরীক্ষার জন্য হরিদ্বার, দেরাদুন এবং হরিয়ানা থেকে ১১ টি ল্যাবকে এনেছিল। কিন্তু দেখা গেছে, মেলা চলাকালীন হরিয়ানার দুটি ল্যাবে ১ লক্ষেরও বেশি পুণ্যর্থীর অ্যান্টিজেন পরীক্ষা করা হয়েছিল। কিন্তু বেশিরভাগের রিপোর্ট নেগেটিভ আসে। এপ্রিল মাসে করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ের সময় দেশে অন্যান্য জায়গার তুলনায় হরিদ্বারে কম পজিটিভ কেস ধরা পড়ে।

এরপরই সন্দেহ হয় এবং জেলা প্রশাসনের তরফে তদন্তে নির্দেশ দেওয়া হয়। এরপরেই নড়েচড়ে বসে কুম্ভ মেলা কর্তৃপক্ষ। জানা যায় মেলায় করোনা পরীক্ষা নিয়ে ব্যাপক গোলমাল হয়েছে।

Comments
Loading...