না, অমিত শাহকে ‘জয় শ্রী রাম’ লেখা ফাইল দেননি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, ছবিতে ফটোশপ করে ভুয়ো প্রচার সোশ্যাল মিডিয়ায়

গত ১৯ শে সেপ্টেম্বর দিল্লিতে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের সঙ্গে দেখা করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী এনআরসি নিয়ে তাঁর বক্তব্য কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে জানিয়েছেন বলে সেদিন বৈঠকের শেষে জানা যায়। বৈঠক শেষ করে একথা জানিয়েছিলেন খোদ রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী। এবং এনআরসি নিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় রাজ্যের বক্তব্য সম্বলিত একটি ফাইলও তুলে দিয়েছিলেন অমিত শাহের হাতে। আর এই ফাইল তুলে দেওয়ার ছবিকে কেন্দ্র করেই রাজ্য রাজনীতিতে শুরু হল এক নতুন বিতর্ক।
মুখ্যমন্ত্রী এবং অমিত শাহের ছবিতে ফাইলের অংশটি ফটোশপ করে ‘জয় শ্রী রাম’ লেখা একটি ভুয়ো ছবি সার্কুলেট হচ্ছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। এই ভুয়ো ছবিতে দেখা যাচ্ছে, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যে ফাইল অমিত শাহের হাতে তুলে দিচ্ছেন, তার ওপরে একটি মন্দিরের ছবি এবং তাতে লেখা ‘জয় শ্রী রাম’। বিভিন্ন ব্যক্তি এবং কোনও কোনও রাজনৈতিক দলের নেতা-কর্মীরাও এই ফটোশপ করা ছবি শনিবার সকাল থেকে ফেসবুকে অকাতরে শেয়ার করছেন।

এই গোটা ঘটনায় রাজ্য সরকার অত্যন্ত ক্ষুব্ধ। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এবং একটি রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর বৈঠকের ছবিকে এভাবে ফটোশপ করে প্রচার করা অত্যন্ত গর্হিত কাজ বলেই মনে করছেন নবান্নের শীর্ষ আধিকারিকরা। কী উদ্দেশ্যে, কে এই ঘটনা ঘটিয়েছে, তাও খতিয়ে দেখা হচ্ছে বলে জানা গিয়েছে। সূত্রের খবর, কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী এনআরসি নিয়ে যে ফাইল তুলে দিয়েছিলেন, তার ওপরে শুধুমাত্র পশ্চিমবঙ্গ সরকারের লোগো ছিল। সরকারি আধিকারিকরা মনে করছেন, গোটা ঘটনায় একটা সাম্প্রদায়িক মোড়ক দিতে ফাইলের ওপরের ছবি ফটোশপ করে সেখানে মন্দিরের ছবি বসানো হয় এবং ‘জয় শ্রী রাম’ লিখে দেওয়া হয়েছে।
গত ১৮ এবং ১৯ শে সেপ্টেম্বর মুখ্যমন্ত্রীর পরপর প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এবং কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের সঙ্গে বৈঠক নিয়ে সমালোচনায় সরব হয়েছিলেন বামেরা। কিন্তু মুখ্যমন্ত্রী এবং কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর ছবিতে এই ফটোশপের পিছনে কারা আছেন তা এখন খোঁজ করার চেষ্টা করছেন সরকারি আধিকারিকরা।

Comments
Loading...