সাম্প্রদায়িক উসকানি দিয়ে একটি টাকা ভর্তি গাড়িকে পালাতে দেওয়া হয়েছে, নাম না করে ভারতী ঘোষকে তীব্র আক্রমণ মমতার

কেন্দ্রীয় বাহিনীকে আড়াল হিসেবে ব্যবহার করে রাজ্যের বিভিন্ন কেন্দ্রে টাকা ছড়াচ্ছে বিজেপি। হাড়োয়ার জনসভা থেকে বিস্ফোরক অভিযোগ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের।

সম্প্রতি ঘাটাল কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী ভারতী ঘোষের গাড়ি থেকে হিসাব বহির্ভূত লক্ষাধিক টাকা উদ্ধার করেছে নির্বাচন কমিশন। নাম না করে সেই ঘটনার কথা উল্লেখ করে মমতার অভিযোগ, ধর্মীয় উসকানি দিয়ে গোলমাল পাকিয়ে একটি টাকা ভর্তি গাড়িকে পালাতে দেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি উত্তর ভারত থেকে বহিরাগতরা এলাকায় ঘুরে বেড়াচ্ছে বলে, সভায় উপস্থিত জনতাকে সতর্ক করে দেন, দলের নেতা কর্মীদের বলেন বিষয়টি দেখতে। এভাবে বেশ কয়েকজন বহিরাগতকে গ্রেফতারও করা হয়েছে বলে জানান মমতা। বিএসএফের কাছে তাঁর আবেদন, সীমান্ত রক্ষার কাজ করুন, দয়া করে বিজেপিকে সাহায্য করতে যাবেন না। উড়োজাহাজ, হেলিকপ্টার, গাড়ি ভর্তি বাক্স বাক্স টাকা রাজ্যে ছড়িয়ে ভোট কিনতে চাইছে বিজেপি, বলে অভিযোগ করেন মমতা। বলেন, বিজেপির যে সমস্ত ভিনরাজ্যের বা জাতীয় স্তরের নেতারা রাজ্যে সভা করতে আসছেন, তাদের সবার গাড়িতে তল্লাশি চালাতে হবে। মমতার কথায়, সেই তল্লাশির শুরুটা হবে আমার গাড়ি আর হেলিকপ্টার দিয়ে। নির্বাচন কমিশনকে তাঁর প্রশ্ন, প্রধানমন্ত্রী মোদীর হেলিকপ্টারে কেন ক্যামেরা লাগানো হবে না? তিনি বলেন, উঁনি কি সব নিয়মের বাইরে? তাঁর যে মোদীকে পছন্দ নয়, সেকথাও সাফ জানিয়েছেন মমতা। রাজ্যের প্রয়োজনে বারকয়েক প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছেন ঠিকই, কিন্তু কাজের কাজ কিছুই হয়নি, বলেন তৃণমূল নেত্রী।

মোদী যখন এ রাজ্যে এসে দাবি করছেন, অনেক টাকা দেওয়া হয়েছে রাজ্যকে, মমতার পাল্টা অভিযোগ, রাজ্যে পরপর কয়েক বছর বন্যার সময়, বারবার কেন্দ্রের সাহায্য চেয়েও সাড়া মেলেনি। রাজ্যকে নিজের বা দলের টাকা নয়, জনগণের টাকাই ফিরিয়ে দিচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী, কটাক্ষ মমতার।

Comments
Loading...