মোদী আমাকে ভয় পচ্ছে, বিদ্যাসাগরের মূর্তি ভাঙায় মোদী-অমিত শাহকে পুরস্কার দিল কমিশন, বাংলা ভোটে বদলা নেবেঃ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

স্বরাষ্ট্র সচিব এবং এডিজি সিআইডি রাজীব কুমারকে অপসারণ এবং প্রচারের সময় এগিয়ে আনার নজিরবিহীন সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে গর্জে উঠলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তীব্র আক্রমণ করলেন নির্বাচন কমিশনকে। মোদী-অমিত শাহের কথায় নির্বাচন কমিশন এই বেনজির সিদ্ধান্ত নিয়েছে বলে অভিযোগ মমতার। বুধবার সন্ধ্যায় নির্বাচন কমিশনের এই বেনজির সিদ্ধান্তের পর রাত ৯ টায় বাড়িতে সাংবাদিক সম্মেলন ডাকেন মুখ্যমন্ত্রী।
মুখ্যমন্ত্রীর বক্তব্য, এই সিদ্ধান্ত নির্বাচন কমিশনের নয়, এই নির্দেশ মোদী-অমিত শাহের। অমিত শাহ দাঙ্গা করতে মঙ্গলবার কলকাতায় এসেছিলেন বলে অভিযোগ করলেন মুখ্যমন্ত্রী। তাঁর অভিযোগ, অন্যায় করলেন অমিত শাহ, গুণ্ডামি করল বিজেপির লোকজন। অ্যাকশন নেওয়া উচিত অমিত শাহের বিরুদ্ধে। বাইরে থেকে গেরুয়া পোশাক পরিয়ে কলকাতায় গুণ্ডাদের আনা হয়েছিল।
মুখ্যমন্ত্রী অভিযোগ করেন, এদিন সকালে সাংবাদিক বৈঠক করে অমিত শাহ নির্বাচন কমিশনকে হুমকি দেন, তারপরই কমিশন এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে।
কলকাতার প্রাক্তন সিপি এবং বর্তমান এডিজির অপসারণ প্রসঙ্গে মুখ্যমন্ত্রী প্রশ্ন তোলেন, রাজীব কুমারকে এত ভয় পাচ্ছে কেন? টাকা ধরছে বলে? মুকুল রায়, হিমন্ত বিশ্বশর্মারা টাকা ছড়িয়ে ভোট কেনার চেষ্টা করছে, তা ধরছেন বলেই কি রাজীব কুমারকে ভয়? রাত ৯ টায় সাংবাদিক সম্মেলন করে প্রশ্ন তোলেন মুখ্যমন্ত্রী।
মুখ্যমন্ত্রী প্রশ্ন করেন, এভাবে কি নির্বাচন কমিশন মোদীকে জেতাতে পারবে? নির্বাচন কমিশন কেন মোদী-অমিত শাহকে শো-কজ করছে না, সেই প্রশ্নও তোলেন তিনি। নির্বাচন কমিশন চাইলে তাঁর বিরুদ্ধে যে কোনও ব্যবস্থা নিতে পারে বলে হুমকি দিয়ে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, আমি কাউকে ভয় পাই না। জেল দেবে? শো-কজ করবে? যা খুশি করতে পারে কমিশন।
মমতা বলেন, বিদ্যাসাগরের মূর্তি ভাঙার জন্য মোদী-অমিত শাহকে পুরস্কার দিয়েছে নির্বাচন কমিশন। বাংলাকে কলঙ্কিত করেছে কমিশন, ফ্যাসিস্ট কায়দায় ভোট করাচ্ছে। ভোটে এর বদলা নেবে মানুষ।

Comments
Loading...