ফের কমিশনের সঙ্গে সংঘাতে রাজ্য, দিল্লি সমান্তরাল প্রশাসন চালাচ্ছে, অভিযোগ মমতা

তৃতীয় দফা ভোটগ্রহণের আগে নির্বাচন কমিশনের বিশেষ পর্যবেক্ষক অজয় নায়েকের মন্তব্য ঘিরে উত্তাল রাজ্য রাজনীতি। শনিবার বাংলার আইন-শৃঙ্খলা নিয়ে প্রশ্ন তুলে  নির্বাচন কমিশনের বিশেষ পর্যবেক্ষক অজয় নায়েক মন্তব্য করেছিলেন, ১০-১৫ বছর আগে বিহারের নির্বাচনী পরিস্থিতি যেমন ছিল, তেমনটাই দেখা যাচ্ছে পশ্চিমবঙ্গে। অজয় নায়েকের মন্তব্যের প্রেক্ষিতে ক্ষোভে ফেটে পড়েন তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বাংলাকে অপমান করে হচ্ছে বলে দাবি করে মমতার অভিযোগ, রাজ্যকে সম্পূর্ণ অন্ধকারে রেখে ‘সমান্তরাল সরকার’ চালানোর চেষ্টা চালানো হচ্ছে। বিশেষ পর্যবেক্ষক অজয় নায়েকের অপসারণের দাবি করে নির্বাচন কমিশনকেও চিঠি দেয় তৃণমূল। চিঠিতে লেখা হয়, দ্বিতীয় দফা ভোট গ্রহণ শেষে রাজ্যে অবাধ ও শান্তিপূর্ণ ভোটগ্রহণ হয়েছে বলে ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন। কিন্তু এর মধ্যে কী এমন ঘটল যে কমিশনের বিশেষ পর্যবেক্ষক এমন মন্তব্য করলেন। তাছাড়া অবসর গ্রহণের পরও কেন একজন আমলাকে বিশেষ পর্যবেক্ষকের দায়িত্ব দেওয়া  হয়েছে, চিঠিতে সেই প্রশ্নও তুলেছে তৃণমূল। তাদের আরও অভিযোগ, বিজেপি ও আরএসএসের সঙ্গে যোগ রয়েছে অজয় নায়েকের। তাদের নির্দেশ মাফিক তিনি কাজ করছেন বলে অভিযোগ তৃণমূলের।
রবিবার নদিয়ার গয়েশপুরের সভা থেকেও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় অভিযোগ করেন, দিল্লি থেকে দু’টো লোক পাঠিয়ে সরকার চালানো হচ্ছে। তাঁরা রাজ্যের সব অফিসার বদলে দিচ্ছেন। চেষ্টা করছেন বিজেপিকে কীভাবে সাহায্য করা যায়। রাজনৈতিক কথা বলছেন অবসরপ্রাপ্ত অফিসারেরা।
মমতার কথায়, রাজ্যে একটা নির্বাচিত সরকার আছে। কিন্তু রাজ্য সরকারকে বাদ দিয়ে দিল্লি থেকে লোক পাঠিয়ে সমান্তরাল একটা সরকার চালানোর চেষ্টা চলছে। যা অসাংবিধানিক বলে মন্তব্য করেন মমতা। যদিও, এর প্রেক্ষিতে সংবাদমাধ্যমকে কোনও প্রতিক্রিয়া দিতে রাজি হননি কমিশনের বিশেষ পর্যবেক্ষক অজয় নায়েক।
তৃণমূল নেত্রীর কটাক্ষ, গত বিধানসভা ভোটেও রাজ্যের ১০০ শতাংশ বুথে কেন্দ্রীয় বাহিনী ছিল। তাতেও তৃণমূলের জয় আটকানো যায়নি। রবিবার নদিয়ার হবিবপুরের আর একটি নির্বাচনী সভা থেকে মমতার চ্যালেঞ্জ, দিল্লি থেকে পাঁচ কোটি বাহিনী আনলেও, এ রাজ্যে বিজেপি ‘গোল্লা’ পাবে।
অন্যদিকে, নির্বাচন কমিশনের বিশেষ পর্যবেক্ষক অজয় নায়েকের মন্তব্যকে সমর্থন করেছে বিজেপি নেতৃত্ব। বিজেপি সভাপতি অমিত শাহের কটাক্ষ, তৃণমূল রিগিং করতে পারছে না বলে এমন সব মন্তব্য করছে।

Comments
Loading...