‘সৌভাগ্যবশত বেঁচে গেছি, কেউ কেউ ভেবেছিল বেরোতে পারব না’, ঝালদায় হুইল চেয়ারে বসেই সভায় মমতা

হুইল চেয়ারে বসেই পুরুলিয়ার ঝালদায় সভা করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি। ভাঙ্গা পা একটি টুলের উপর রাখা, নেত্রী বসে হুইল চেয়ারে। পুরুলিয়ার ঝালদার সভায় ঠিক এভাবেই আবির্ভূত হলেন মমতা ব্যানার্জি। বললেন, ১০ তারিখ একটি ঘটনায় সারা শরীরে চোট লাগে। সৌভাগ্যবশত বেঁচে গেছি। কিন্তু আমার যন্ত্রণার চেয়ে মানুষের যন্ত্রণা বেশি। বাড়িতে বসে থাকি কী করে?

মমতা ব্যানার্জি ঝালদার সভা থেকে বিজেপিকে তীব্র আক্রমণ শানান। তাঁর আবেদন, বাইরে থেকে গুন্ডা এনে আপনার ভোট লুট করতে দেবেন না। আমার তৃণমূল কর্মীদের বলছি, আমি যদি ভাঙ্গা পায়ে লড়তে পারি, তাহলে তোমরা কেন লড়বে না? যারা এখনও অভিমান করে বসে আছো, বেরিয়ে এস। লড়ায়ের সময় বসে থাকতে নেই। এই লড়াই আমাদের অস্তিত্বের লড়াই।

মমতা বিজেপি বা তাদের সঙ্গীদের ভোট না দেওয়ার আবেদন জানান। পাশাপাশি কংগ্রেস-সিপিএমকেও ভোট দিলে তা আসলে বিজেপিকেই ভোট বলে দাবি করেন মমতা। তৃণমূল নেত্রী বলেন, আমি বিজেপির বিরুদ্ধে সর্বাত্মক লড়াইয়ে নেমেছি। আমাকে আক্রমণ করলে মা-বোনেরা জবাব দেবে। তাঁর অভিযোগ বিজেপি দলটিতে গণতন্ত্র নেই। নরেন্দ্র মোদী ভাবেন বিজেপি ছাড়া আর কোনও দল থাকবে না। মমতা বলেন, লোকসভায় বিজেপি জিতেছিল কী করেছে বলুন? জনতা উত্তর দেয়, কিছু না। মমতা ব্যানার্জি বলেন, এবার উল্টে দিন।

মমতা বলেন, শরীরটা সুস্থ নেই, তাই অনেকক্ষণ ধরে বলতে অসুবিধা হচ্ছে। শেষে জনতার উদ্দেশ্যে তৃণমূল নেত্রী বলেন, খেলা হবে।

 

 

Comments
Loading...