সংক্রামক রোগ প্রতিরোধে উৎকর্ষ কেন্দ্র গড়ছে রাজ্য, তথ্যপ্রযুক্তি দফতর আনল নয়া অ্যাপ, ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রীর

কোভিড থেকে শিক্ষা নিয়ে ভবিষ্যতে সংক্রামক রোগ মোকাবিলায় বিশেষ পদক্ষেপ নিল রাজ্য সরকার। সোমবার নবান্নে মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জির ঘোষণা, কোভিড মোকাবিলায় অসাধারণ ভূমিকা নেওয়া বেলেঘাটা আইডি হাসপাতালে সংক্রমক রোগ গবেষণা ও চিকিৎসাকেন্দ্র গড়ে তোলা হবে। পাশাপাশি স্কুল অফ ট্রপিকাল মেডিসিনে ৬ টি নয়া পদ সৃষ্টি করা হচ্ছে এবং কলকাতা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে হচ্ছে রাজ্যের প্লাজমা ব্যাঙ্ক। এদিন মুখ্যমন্ত্রী রাজ্য সরকারের তথ্যপ্রযুক্তি দফতরের তৈরি করা সেলফ স্ক্যান অ্যাপও লঞ্চ করেন। তিনি বলেন, কোন দেশের অ্যাপ ব্যবহার করবেন তা নিয়ে তর্ক বিতর্কে না গিয়ে বাংলায় তৈরি সেলফ স্ক্যান অ্যাপ ব্যবহার করুন। এই অ্যাপে সমস্ত নথি স্ক্যান করা যায় নিমেষে আবার নিরাপত্তাও বিঘ্নিত হয় না, দাবি করেন মুখ্যমন্ত্রী।

এদিন টালিগঞ্জের কলাকুশলীদের সঙ্গেও বৈঠক করেছেন মুখ্যমন্ত্রী। কোভিড পরিস্থিতিতে কীভাবে কাজ চলছে তার খবরাখবর নেন মমতা। বলেন, এবার থেকে শুটিংয়ে সর্বাধিক ৪০ জনকে প্রবেশাধিকার দেওয়া যাবে। কাজ শুরু করা যাবে নন ফিকশনের। আউটডোরে ফাঁকা জায়গায় প্রশাসনের অনুমতি নিয়ে করা যাবে শুটিংও। তবে রিয়্যালিটি শোতে দর্শক আনা যাবে না। নিয়ম মেনে সাবধানে কাজ করার পরামর্শের সঙ্গেই মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ওয়েব মাধ্যমের বাড়তি গ্রহণযোগ্যতার দিকে তাকিয়ে রাজ্য সরকার বিশেষ কমিটি তৈরি করছে। পরমব্রত চ্যাটার্জি ও রাজ চক্রবর্তীকে নিয়ে তৈরি হবে কমিটি। এছাড়া সরকার শিল্পীদের দক্ষতা বাড়াতে গ্রুমিং ক্লাসও করাবেন সিনিয়র শিল্পীরা। পরিকাঠামো গড়ে দেবে রাজ্য সরকার।

এদিন মুখ্যমন্ত্রী আমপানে ক্ষতিগ্রস্ত সিনেমাহলগুলোকে সাহায্য করার কথা ঘোষণা করেন। এই সূত্রেই তিনি বলেন, আমপানের টাকাটা তাড়াতাড়ি পাঠিয়েছি বলে কোথাও কোথাও একটু ভুলভ্রান্তি যারা করেছিল, সেটা আমরা রেক্টিফাই করে নিচ্ছি। কেউ বঞ্চিত হবে না। মমতা ব্যানার্জির কথায়, আমার উপর আস্থা রাখবেন। মুখ্যসচিবকে নির্দেশ দিচ্ছি কেউ যেন বঞ্চিত না হন।

এদিন একটি জল প্রকল্পের কথাও ঘোষণা করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি। রাজ্যের প্রতিটি গ্রামীণ বাড়িতে নলবাহিত জল পৌঁছনোর প্রকল্প জলস্বপ্নের উদ্বোধন করে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ৫৮ হাজার কোটি টাকার এই প্রকল্পে আগামী ৫ বছরের মধ্যে বাংলার গ্রামের ২ কোটি বাড়িতে পরিশ্রুত পানীয় জল পৌঁছে দেবে তাঁর সরকার। টালিগঞ্জ ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির কাছে মুখ্যমন্ত্রীর আবেদন, জলস্বপ্ন কর্মসূচিকে আরও মানুষের কাছে পৌঁছে দিতে গান তৈরি করুন।

Comments
Loading...