বিজেপি নেতা মণীশ শুক্লা খুনে পাঞ্জাব থেকে সিআইডির জালে দুই সুপারি কিলার

টিটাগড়ের বিজেপি নেতা মণীশ শুক্লা খুনের ঘটনায় এবার সিআইডির জালে দুই ভাড়াটে খুনি। সূত্রের খবর, পাঞ্জাব থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়েছে। ধৃতদের নাম রোশন যাদব, সুজিত রাই। পুলিশ সূত্রে খবর, ধৃত দুই ভাড়াটে খুনির বাড়ি বিহারে। পুলিশের নজর এড়াতে পঞ্জাবের লুধিয়ানায় লুকিয়েছিল তারা। সিআইডির একটি টিম দুই ভাড়াটে খুনিকে পাঞ্জাব থেকে গ্রেফতার করে ট্রানজিট রিমান্ডে শুক্রবার বারাকপুর আদালতে পেশ করে।

গত ৪ অক্টোবর, রবিবার সন্ধ্যেয় দুষ্কৃতীদের গুলিতে নিহত হন সাংসদ অর্জুন সিং ঘনিষ্ঠ বিজেপি নেতা মণীশ শুক্লা। খুনের ৪৮ ঘণ্টার মধ্যেই খুররম খান, গুলাব শেখ নামে দু’জনকে গ্রেফতার করে সিআইডি। ধৃতদের জেরা করে তদন্তকারীদের প্রাথমিক অনুমান ছিল, ব্যক্তিগত শত্রুতার জেরে খুন। কিন্তু পরবর্তীতে বোঝা যায়, ব্যক্তিগত শত্রুতাকে কাজে লাগিয়ে রাজনৈতিক প্রতিহিংসা বশতঃ মণীশ শুক্লাকে খুন করা হয়েছে। ভাড়াটে খুনিদের কথাও জানা যায়। এর গোটা পরিকল্পনার মাস্টারমাইন্ড হিসেবে উঠে আসে পাটনার জেলবন্দি সুবোধ নামে এক গ্যাংস্টারের নাম। সিআইডির এক আধিকারিক জানাচ্ছেন, বেউর জেলে বসে মণীশ শুক্লা খুনের সুপারি দেয় সুবোধ। মণীশ শুক্লাকে খুনের পর ভাড়াটে খুনিরা বিহারে ফিরে যায়। পরে গ্রেফতারি এড়াতে সেখান থেকে পাঞ্জাব। টিটাগড়ের বিজেপি নেতাকে লক্ষ্য করে গুলি চালানো শার্প শুটারদের মধ্যে ধৃত দু’জন ছিল বলে মনে করছেন তদন্তকারী অফিসাররা।

Comments
Loading...