মাদককাণ্ডে ধৃত বিজেপি নেতার সঙ্গে রাজ্যপালের ছবি ট্যুইট কল্যাণ ব্যানার্জির

গত সোমবার রাজ্যের চার হেভিওয়েট নেতার গ্রেফতারির পরই রাজ্যপালের বিরুদ্ধে চাঁচাছোলা ভাষায় আক্রমণ শানান তৃণমূল সাংসদ তথা আইনজীবী কল্যাণ ব্যানার্জি

মাদক কাণ্ডে ধৃত বিজেপি নেতা রাকেশ সিংহের সঙ্গে রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়ের ছবি ট্যুইট করলেন তৃণমূল সাংসদ কল্যাণ ব্যানার্জি।

মঙ্গলবার তিনি এই ছবিটি ট্যুইট করেন। যেখানে দেখা যাচ্ছে রাজ্যপালের পাশের চেয়ারে হাসি মুখে বসে রয়েছেন কোকেনকাণ্ডে ধৃত বিজেপি নেতা রাকেশ সিংহ। ছবির ক্যাপশনে তৃণমূল সাংসদের খোঁচা, রাকেশ সিংহের উন্নতি না রাজ্যপাল পদমর্যাদার অবনতি?

গত সোমবার রাজ্যের চার হেভিওয়েট নেতার গ্রেফতারির পরই রাজ্যপালের বিরুদ্ধে চাঁচাছোলা ভাষায় আক্রমণ শানান তৃণমূল সাংসদ তথা আইনজীবী কল্যাণ ব্যানার্জি। কল্যাণ ব্যানার্জি দাবি করেন, ওই চার নেতার বিরুদ্ধে এভাবে চার্জশিট পেশের অনুমতি রাজ্যপাল দিতে পারেন না। রাজ্যপালের হস্তক্ষেপ সম্পূর্ণ বেআইনি।

এখানেই থামেননি কল্যাণ। রাজ্যপালের বিরুদ্ধে রাজ্যের প্রতিটি থানায় এফআইআর করার আর্জি জানান তৃণমূল সাংসদ। তিনি বলেন, রাজ্যপাল থাকাকালীন ধনখড়ের বিরুদ্ধে কোনও আইনি পদক্ষেপ না নেওয়া গেলেও পদের মেয়াদ ফুরনোর পর ওঁর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া যাবে।

কল্যাণ ব্যানার্জির তোপ, চার নেতা যে প্রেসিডেন্সি জেলে বন্দি, রাজ্যপালকেও সেই প্রেসিডেন্সি জেলেই কারাবাস করতে হবে।

প্রতিক্রিয়া আসে রাজ্যপালের তরফ থেকেও। তৃণমূল সাংসদের এই বক্তব্যের ভিডিও ট্যুইট করে তাঁকে পাল্টা কটাক্ষ করেন ধনখড়। দু’জনের ট্যুইট যুদ্ধে কার্যত সরগরম রাজ্য রাজনীতি। এই আবহে ফের একবার কল্যাণের ট্যুইট বাণ রাজ্যপালকে।

বিধানসভা ভোটের কিছুদিন আগে আলিপুরে মাদক সমেত গ্রেফতার হন বিজেপির যুব নেত্রী পামেলা গোস্বামী। সেই মামলায় তদন্তে নেমেই পুলিশ গ্রেফতার করে বিজেপি নেতা রাকেশ সিংহকে। এখনও ধৃত রাকেশ জেলা হেফাজতে রয়েছেন। আর এরকম একজনের সঙ্গে রাজ্যপালের ছবি ট্যুইটা করে রাজ্যপালকে ফের একবার তীব্র সমালোচনায় বিঁধলেন আইনজীবী তথা তৃণমূল সাংসদ কল্যাণ ব্যানার্জি।

Comments
Loading...