পামেলা কাণ্ডে কেঁচো খুঁড়তে কেউটে! গ্রেফতার আরও দুই

পামেলাকাণ্ডে সোমবার রাতে গ্রেফতার হয়েছিলেন প্রিয়াঙ্কা সিংহ নামে এক তরুণী। তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদ করে আরও দুই মাদক কারবারীর সন্ধান পেল পুলিশ। ফারহান আহমেদ এবং দইম আখতার নামে দুই ব্যক্তিকে গ্রেফতার করল পুলিশ। এদের কাছ থেকে উদ্ধার হয়েছে ১০ গ্রাম কোকেন। জানা গিয়েছে, রাকেশ সিংহকে মাদক সরবরাহ করতেন ফারহান ও দইম।

সোমবার রাতে প্রিয়াঙ্কা ওরফে সুইট সিংহ নামে এক তরুণীকে গ্রেফতার করে পুলিশ। পুলিশের কাছে জেরায় প্রিয়াঙ্কা স্বীকার করে, রাকেশ সিংহের কাছে মাদক পৌঁছে দিতে তিনি। তাঁর কাছেই আরও দু’জনের নাম উঠে আসে। পুলিশ সূত্রে খবর, প্রথমে দইমের কাছে মাদক নিতেন ফারহান, এরপর সেই মাদক ফারহানের কাছ থেকে কিনতেন প্রিয়াঙ্কা। যা সরাসরি তিনি পৌঁছে দিতেন রাকেশের কাছে। পুলিশ সূত্রে আরও জানা গিয়েছে, পামেলাকে ফাঁসানোর জন্য ফারহানকে কাজে লাগান রাকেশ।

গতমাসে বিজেপি যুব মোর্চার রাজ্য সম্পাদক পামেলা গোস্বামীকে গ্রেফতার করে পুলিশ। নিউ আলিপুর থেকে ১০ লক্ষ টাকার কোকেনসমেত গ্রেফতার হন পামেলা। পামেলা রাকেশের নামে অভিযোগ করেন। গ্রেফতার হন রাকেশ, তাঁর বন্ধু জিতেন্দ্রকুমার সিংহ।
পুলিশি তদন্তে পামেলার গাড়িতে মাদক রাখার অভিযোগে অমৃত সিংহ নামে একজনের নাম উঠে আসে। অমৃত সিংহ এখনও পলাতক। পামেলা গ্রেফতার হওয়ার সময় অমৃত সিংহ, সূরজকুমার শাহ নামে এক ব্যক্তির স্কুটারে পালিয়ে গিয়েছিল বলে জানিয়েছে পুলিস। গ্রেফতার হয়েছেন সূরজ। এবার পুলিশের জালে ফারহান এবং দইম।

Comments
Loading...