২৮-২৯ ফেব্রুয়ারি, ফুলবাগানে জনতার সাহিত্য উৎসব ঘিরে উৎসাহ তুঙ্গে

কেন্দ্রের সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন, এনআরসি, এনপিআর নিয়ে দেশজোড়া ক্ষোভ-বিক্ষোভ, অশান্তি ও হিংসার আবহে ফুলবাগানের সুকান্ত মঞ্চে আগামী ২৮-২৯ ফেব্রুয়ারি দু’দিনব্যাপী তৃতীয় কলকাতা জনতার সাহিত্য উৎসব অনুষ্ঠিত হচ্ছে। আমন্ত্রিতদের মধ্যে রয়েছেন দিল্লির জামিয়া মিলিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে সিএএ ও এনআরসি বিরোধী আন্দোলনের অন্যতম মুখ আয়েশা রেন্না, কাশ্মীরের গায়ক ও লেখক মুয়াজ্জম ভাট, অসমের কবি কাজি নীল, ওড়িশার কবি সুজাতা শাহানি প্রমুখ।

দু’দিনের সাহিত্য উৎসবে দেশের বিভিন্ন প্রান্তের লেখক, কবি, ছাত্রনেতা-সহ বিশিষ্টরা অংশ নিচ্ছেন আলোচনা সভায়। সাহিত্য উৎসবের মাধ্যমে মৌলিক রচনা থেকে অনুবাদ রচনা, বিভিন্ন ‘প্রতিরোধী’ সাহিত্যের নানা দিক তুলে ধরাই উদ্দেশ্য বলে জানাচ্ছেন উদ্যোক্তারা। সেইসঙ্গে সাহিত্য প্রকাশনা, প্রচার ও প্রসারের সমস্যাও থাকছে আলোচনা সভার বিষয়ের মধ্যে। বস্তার সলিডারিটি নেটওয়ার্ক কলকাতা চ্যাপ্টারের উদ্যোগে এই অনুষ্ঠানে কোনও সরকারি বা প্রতিষ্ঠানিক আর্থিক সাহায্য নেওয়া হয় না। আমজনতার সাহায্যেই এই সাহিত্য উৎসব।

দেশজুড়ে বর্তমান অশান্ত পরিস্থিতি, সিএএ, এনআরসি ও এনপিআর নিয়ে দেশজোড়া আন্দোলন-সহ বিভিন্ন রাজনৈতিক ও সামাজিক ইস্যু নিয়ে আলোচনাসভার আয়োজন করা হয়েছে। ২০১৮ সাল থেকে শুরু হওয়া এই ‘জনতার সাহিত্য উৎসব’-এর প্রথম দু’বছরই আমন্ত্রিত বক্তাদের মধ্যে ছিলেন সমাজকর্মী ও লেখক ভারভারা রাও, ভের্নন গঞ্জালভেস, অরুণ ফেরেরা, বি অনুরাধা প্রমুখ। এঁরা প্রত্যেকেই এখন ভীমা কোরেগাঁও মামলায় জেলবন্দি। এবারের জনতার সাহিত্য উৎসবে থাকছেন মুয়াজ্জম ভাট, কাজি নীল, আয়েশা রেন্না ছাড়াও তেলেঙ্গানার প্রাবন্ধিক ভেনুগোপাল, সাংবাদিক ও প্রাবন্ধিক নীলাঞ্জন দত্ত, লেখক অজিত রায়, লাদিদা সাখালুঁ প্রমুখ।

Comments
Loading...