Modi @ Kanthi: যে নন্দীগ্রাম আপনাকে এত দিয়েছে তাকেই অপমান করছেন?

মমতার আহত হওয়ার ঘটনা নিয়ে তৃণমূল নেত্রীকেই বিঁধলেন নরেন্দ্র মোদী

সভা ছিল কাঁথিতে। কিন্তু শুভেন্দুর পাড়ায় মোদীর সমাবেশ হয়ে উঠল কার্যত নন্দীগ্রামের প্রচার সভা। মমতা ব্যানার্জিকে কটাক্ষ করে নরেন্দ্র মোদী বলেন, যে নন্দীগ্রাম আপনাকে এত কিছু দিল আজ তাকেই অপমান করছেন?
বুধবার পূর্ব মেদিনীপুরের কাঁথির জনসভা থেকে মমতার আহত হওয়ার ঘটনা নিয়ে তৃণমূল নেত্রীকেই বিঁধলেন নরেন্দ্র মোদী। রাজ্য রাজনীতিতে অধিকারী গড় নামে পরিচিত কাঁথিতে দাঁড়িয়ে মোদীর তোপ, নন্দীগ্রামের বদনাম করার জন্য একের পর এক মিথ্যে কথা বলেছেন উনি। পাশাপাশি মোদীর হুঙ্কার, দিদি আপনি খেলুন, আমরা মানুষের সেবা করব।
এদিন প্রধানমন্ত্রী অভিযোগ করেন, তৃণমূল নেত্রীর জন্য সারাদেশে নন্দীগ্রামের মানুষের অপমান হচ্ছে। নন্দীগ্রামের মানুষ আত্মমর্যাদা সম্পন্ন। তাঁরা এই অপমানের জবাব দেবেন।
তৃণমূল নেত্রী প্রতিটি সভা থেকেই বলছেন, চোটের জন্য তিনি স্বাভাবিক ভাবে হাঁটতে অক্ষম হলেও, বাংলার মা বোনেদের দু’পায়ে ভর করেই তিনি একুশের ভোট যুদ্ধে জয়ী হবেন। এদিন তার পালটা দিতে গিয়ে মোদীও বাংলার মা বোনেদের প্রসঙ্গ টেনে আনেন।
মোদীর কটাক্ষ, মা বোনেরা পায়ে হেঁটে বেরিয়ে এসেছেন, আপনার অপশাসনের জবাব দিতে। উপস্থিত জনতাকে দেখিয়ে মোদীর তৃণমূলকে কটাক্ষ, এই ভিড় প্রমাণ দিচ্ছে, তৃণমূলের খেলা শেষ, বাংলার উন্নয়ন শুরু।
কাটমানি, তোলাবাজি নিয়েও তৃণমূলকে তীব্র আক্রমণ করেন নরেন্দ্র মোদী। তাঁর বক্তব্যে এদিন উঠে আসে অভিষেক ব্যানার্জির প্রসঙ্গও।

[আরও পড়ুন- পা দেখাতে হলে বারমুডা পরতে পারেন! মমতাকে নিয়ে দিলীপের মন্তব্যে সমালোচনার ঝড়]

তৃণমূলের বহিরাগত তত্ত্বেরও জবাব দেন তিনি। বলেন ভারতের মাটিতে কোনও ভারতীয় বহিরাগত নন। কাঁথির জনসভায় দাঁড়িয়ে মেদিনীপুরবাসীর উদ্দেশ্যে মোদীর মন্তব্য, মেদিনীপুর এমন একটি জেলা যেখানে প্রতিটি গ্রাম থেকে মানুষ স্বাধীনতা আন্দোলনে অংশগ্রহন করেছিলেন।
অন্যান্য সভার মত এদিনও মোদী অভিযোগ করেন, কেন্দ্রের প্রকল্প থেকে রাজ্যবাসীকে তৃণমূল বঞ্চিত করছে। তাঁর ঘোষণা, বিজেপি ক্ষমতায় এলে রাজ্যে কৃষকদের পিএম কিষাণ নিধি দেওয়া হবে, সেই সঙ্গে বিগত তিন বছরের কৃষকদের বকেয়াও মিটিয়ে দেওয়া হবে।
এদিন মেদিনীপুর তথা হলদিয়া নিয়ে একাধিক ভবিষৎ পরিকল্পনার কথা বলেন। ডবল ইঞ্জিনে সরকারের পক্ষে জোর সওয়াল তোলেন তিনি। বলেন ডবল ইঞ্জিন সরকার এলেই একমাত্র সোনার বাংলা গড়ার স্বপ্ন পূরণ হবে। এদিনও ভাঙ্গা ভাঙ্গা বাংলায় কথা বলে জনতার মন জয়ের চেষ্টা করেন মোদী। উপস্থিত জনতা উচ্ছ্বসিত হয়ে ওঠে।
কাঁথিতে মোদীর সভায় হাজির ছিলেন শুভেন্দুকে নিয়ে হাজির ছিলেন শিশির অধিকারী। তবে আমন্ত্রণ পেলেও দেখা মেলেনি তৃণমূল সাংসদ দিব্যেন্দু অধিকারীর।

Comments
Loading...