মৃত্যু ছাড়িয়েছে ৩ হাজার: রোবট, ড্রোন, আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্সের সাহায্যে করোনাভাইরাস মোকাবিলায় চিন

চিনে মহামারির আকার নিয়েছে করোনাভাইরাস। আক্রান্তদের চিকিৎসা করতে গিয়ে একাধিক চিকিৎসক ও নার্সও এই মারণ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে প্রাণ হারিয়েছেন। এই অবস্থায় রোবট, স্মার্ট হেলমেট, থার্মাল ক্যামেরা দেওয়া ড্রোন, আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স (এআই) বা কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা দিয়ে করোনাভাইরাস আক্রান্তদের চিকিৎসা পরিষেবা দিচ্ছে চিনের কমিউনিস্ট সরকার।
করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা দিন দিন বাড়ছে চিনে। চিনের প্রেসিডেন্ট জিং জিনপিং এই অবস্থায় দেশের প্রযুক্তি ক্ষেত্রের উপর গুরু দায়িত্ব তুলে দিয়েছেন। প্রযুক্তির মাধ্যমে চলছে করোনাভাইরাস লক্ষণের চিহ্নিতকরণ, রোগীদের পরিষেবা ও শ্রুশুষা।

করোনাভাইরাসে রোবটের ব্যবহার

(ভিডিও সৌজন্য: New China TV)

ড্রোনের ব্যবহার

করোনাভাইরাসের প্রাথমিক লক্ষণ হিসেবে জ্বরকে ধরা হয়েছে। তাই ড্রোন দিয়েই জ্বর পরীক্ষা করা হচ্ছে চিনে। মাইক্রোমাল্টি কপ্টার দিয়ে চিকিৎসা সংক্রান্ত নমুনাও পরিবহণ করা হচ্ছে।

আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স (এআই) ব্যবহার

করোনাভাইরাস মোকাবিলায় সবচেয়ে বড় কাজে লাগানো হচ্ছে উন্নত এআই প্রযুক্তিকে। রোগ নির্ণয়, পরীক্ষা-নিরীক্ষা থেকে শুরু করে প্রতিষেধক ব্যবস্থার উন্নীতকরণে কাজে লাগানো হচ্ছে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তাকে। চিনের বিখ্যাত ই-কমার্স সংস্থা ‘আলিবাবা’ জানাচ্ছে, তাদের নয়া এআই সিস্টেম দিয়ে ৯৬ শতাংশ ক্ষেত্রে অতি দ্রু্ত করোনাভাইরাস আক্রান্তকে শনাক্ত করা যাবে।
সাংহাইয়ের এক বিখ্যাত তথ্যপ্রযুক্তি সংস্থার আধিকারিকের কথায়, কোভিড-১৯ এর মোকাবিলায় উন্নত প্রযুক্তিকে যে ভাবে ব্যবহার করা হচ্ছে, তা অভাবনীয়, সৃজনশীল এবং শুভ সংকেতপূর্ণ।

Comments
Loading...