আমির খান, নাসিরুদ্দিন শাহ এবং সিধুকে ‘বিশ্বাসঘাতক’ বললেন আরএসএস নেতা

নভজ্যোৎ সিংহ সিধু, আমির খান ও নাসিরুদ্দিন শাহকে ‘বিশ্বাসঘাতক’ বলে কটাক্ষ করলেন আরএসএস নেতা ইন্দ্রেশ কুমার। শুধু তাই নয়, তিনজনকে রাজপুরের রাজা জয়চাঁদ বা বাংলার মীরজাফরের সঙ্গে তুলনা করেছেন ওই আরএসএস নেতা।
সোমবার আলিগড়ের একটি অনুষ্ঠানের শেষে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে ইন্দ্রেশ কুমার বলেন, ২৬/১১ র হামলায় দোষী সাব্যস্ত হওয়া আজমল কাসভ বা ইয়াকুব মেননের মতো মুসলিমের এদেশে জায়গা নেই। মুসলমান হওয়া উচিত প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি এ পি জে আবদুল কালামের মতো। এরপরই ইন্দ্রেশ কুমার প্রখ্যাত দুই অভিনেতা ও কংগ্রেস মন্ত্রীকে আক্রমণ করে বলেন, রাজা জয়চাঁদ বা মীরজাফরের মতোই বিশ্বাসঘাতক হলেন প্রাক্তন ক্রিকেটার তথা কংগ্রেস মন্ত্রী সিধু, অভিনেতা আমির খান ও নাসিরুদ্দিন শাহ।
ইন্দ্রেশ কুমারের দাবি, আমির খান বা নাসিরুদ্দিন শাহ ভালো অভিনেতা হতে পারেন, কিন্তু সম্মানের যোগ্য নন তাঁরা। কারণ, তাঁরা বিশ্বাসঘাতক।
প্রসঙ্গত, কিছুদিন আগেই উত্তর প্রদেশে পুলিশ অফিসার সুবোধ কুমার সিংহ খুন হওয়ার ঘটনায় নাসিরুদ্দিন শাহ কটাক্ষ করেছিলেন, একজন পুলিশ অফিসারের জীবনের চেয়ে গরুর জীবনের মূল্য এখন অনেক বেশি। বর্তমান অতি হিন্দুত্ববাদী শক্তির সক্রিয়তারও কঠোর সমালোচনা করে অভিনেতা বলেছিলেন, চারদিকে বিষ ছড়িয়ে পড়েছে। অভিনেতা আমির খান বেশ কিছুদিন আগে মন্তব্য করেছিলেন, ভারতে অসহিষ্ণুতা বেড়েছে। অন্যদিকে, পঞ্জাবের কংগ্রেস মন্ত্রী সিধুর পাকিস্তান সফর ও প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের সঙ্গে তাঁর সুসম্পর্কের কারণে তিনজনের বিরুদ্ধে আরএসএস নেতা আক্রমণ শানালেন।
পাশাপাশি, অযোধ্যায় রামমন্দির তৈরিতে কংগ্রেস ও বিরোধী দলগুলি ইচ্ছাকৃত বাধা সৃষ্টি করছে বলেও অভিযোগ করেছেন ইন্দ্রেশ কুমার। তাঁর কথায়, রাম মন্দির তৈরি হচ্ছে না চারটি কারণে। প্রথম কারণ হল, কংগ্রেসের বাধা, দ্বিতীয় কারণ বামপন্থী দলগুলি, তৃতীয়টি হল বিভিন্ন সাম্প্রদায়িকবাদী দল আর চতুর্থত সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতিরা, যাঁরা ইচ্ছে মতো অযোধ্যা মামলার শুনানি পিছিয়ে দিচ্ছেন।

Comments
Loading...