পুরুলিয়া: পঞ্চায়েত, লোকসভার জয়ের ধারা কি বজায় রাখতে পারবে বিজেপি?

এবারের বিধানসভা নির্বাচনে সারা রাজ্যের মধ্যে অন্যতম নজরকাড়া জেলা পুরুলিয়া, যেখানে ভোট প্রথম দফায়। আপাতদৃষ্টিতে অতি সাধারণ জীবনযাত্রা আর নিজস্ব সংস্কৃতি নিয়ে দিনগুজরানের জেলা পুরুলিয়াতে বিগত ২০১৮ সালের পঞ্চায়েত নির্বাচনে হঠাৎই ভোট খতিয়ানে তুলনামূলক সাড়া পেতে শুরু করে বিজেপি।
ত্রিস্তরীয় পঞ্চায়েত নির্বাচনে জেলার ১৭০টি গ্রাম পঞ্চায়েতের মধ্যে ৪৪ টি, ২০টি পঞ্চায়েত সমিতির মধ্যে ৮টি এবং ৩৮ আসন বিশিষ্ট জেলা পরিষদের মধ্যে ১০ টি আসন দখল করে জেলার রাজনৈতিক মানচিত্রে একেবারে দ্বিতীয় স্থান অধিকার করে বিজেপি। এর ঠিক এক বছর পরেই লোকসভা নির্বাচনে জেলার ৯টি বিধানসভা আসনের মধ্যে মানবাজার বাদ দিয়ে বাকি ৮টিতেই প্রবল ব্যবধানে এগিয়ে বিজেপি। পুরুলিয়া লোকসভা আসনে ২ লক্ষের ও বেশি ভোটে জয়লাভ করে সাংসদ নির্বাচিত হন বিজেপির জ্যোতির্ময় সিংহ মাহাতো।
কাঁসাই-দামোদর-সুবর্ণরেখার তীরবর্তী জনপদের আপাত নিরীহ এই জেলা করোনা পরবর্তী লকডাউন কাটিয়ে এক বছর বাদে আবার রাজ্যের সাধারণ নির্বাচনের দোরগোড়ায়। এখন কী অবস্থায় দাঁড়িয়ে এই জেলা?
পুরুলিয়া সদর বিধানসভা আসনে কংগ্রেস থেকে আগত বিধায়ক সুদীপ মুখার্জি এবং জয়পুর আসনে ফরোয়ার্ড ব্লক থেকে আগত প্রাক্তন সাংসদ নরহরি মাহাতো বিজেপির প্রার্থী। পাশাপাশি জেলার অন্যতম রাজনৈতিক নেতৃত্ব গৌরী সিংহ সর্দার মানবাজার বিধানসভা, নদিয়া চাঁদ বাউরি পারা বিধানসভা, জেলা সাধারণ সম্পাদক কমলাকান্ত হাঁসদা কাশীপুর বিধানসভাতে পুনরায় প্রার্থী হয়েছেন। বানেশ্বর মাহাতো বলরামপুর,পার্শী মুর্মু বান্দোয়ান, বিবেকানন্দ বাউরিকে রঘুনাথপুরে প্রার্থী করে জোটসঙ্গী আজসুর জন্য বাঘমুণ্ডি আসন ছেড়েছে বিজেপি। সম্প্রতি পুরুলিয়া বিধানসভার অন্তর্গত পুরুলিয়া দু’নম্বর ব্লকের ভাঙ্গড়াতে জনসভা করেছেন দেশের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

[আরও পড়ুন- দিলীপের বারমুডা মন্তব্যের নিন্দা মহুয়া মৈত্র-দীপ্সিতা ধরের, বললেন বিকৃত মানসিকতা]

পুরুলিয়া বিধানসভার বিজেপি প্রার্থী ও বর্তমান বিধায়ক সুদীপ মুখার্জি বলেন, আগামী দিনে পুরুলিয়া জেলা থেকে নটি বিধানসভা আসনে জয় নিশ্চিত করে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীজীকে সোনার বাংলা উপহার দেওয়া জেলা বিজেপির একমাত্র লক্ষ্য। পুরুলিয়া জেলাতে অনেক পতিত জমি থাকলেও সঠিক পরিকল্পনা ও সদিচ্ছার অভাবে এখানে শিল্প গড়ে ওঠেনি। বিজেপির নেতৃত্বে এবারে সরকার গড়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর ‘সবকা সাথ সবকা বিকাশ স্লোগানকে মাথায় রেখেই পুরুলিয়ার মানুষের জন্য শিল্প নির্মাণ সহ জেলার বেকার যুবক-যুবতীদের জন্য ব্যাপকহারে কর্মসংস্থান সৃষ্টি করাই বিজেপির একমাত্র লক্ষ্য।

প্রধানমন্ত্রীর বিকাশের আহ্বান, জেলা বিজেপির কার্যকর্তাদের বর্তমান রাজ্য সরকারের প্রশাসনিক ব্যর্থতার ক্রমাগত রাজনৈতিক প্রচার কি শেষ অবধি বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপিকে এই জেলায় জনসমর্থনের হ্যাটট্রিক এনে দিতে পারবে, সেই দিকে আগামী ২রা মে পর্যন্ত তাকিয়ে পুরুলিয়ার রাজনৈতিক মহল।

Comments
Loading...