প্রধানমন্ত্রীর ক্ষতিপূরণের টাকা আসেনি, কথা রেখেছেন মুখ্যমন্ত্রী, ক্ষোভ বিজেপি নেতার

প্রধানমন্ত্রীর ক্ষতিপূরণের টাকা আসেনি। কিন্তু কথা রেখেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি। এমনই অভিযোগ খোদ বিজেপি নেতার। উত্তরবঙ্গের ধূপগুড়িতে একটি দুর্ঘটনার পর ক্ষতিপূরণের ঘোষনা করেছিলেন প্রধানমন্ত্রী। কিন্তু সেই ক্ষতিপূরণের টাকা আদৌ মেলেনি। অন্যদিকে একই দুর্ঘটনায় ক্ষতিপূরণের ঘোষনা করে কথা রেখেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি।

১৯ জানুয়ারি রাতে ময়নাগুড়ির রানিরহাট মোড় থেকে ধূপগুড়িতে একটি বিয়েবাড়ির অনুষ্ঠানে যোগ দিতে যাওয়ার সময় দুর্ঘটনার কবলে পড়ে তিনটি গাড়ি। এই দুর্ঘটনায় ১৪ জন মারা যান। বেশ কয়েকজন আহত হন।

ঘটনার পরেই নিহতদের পরিবারকে সাহায্য করার জন্য এগিয়ে আসে বিভিন্ন রাজনৈতিক দল। এরপর তৃণমূলের পক্ষ থেকে অরূপ বিশ্বাস, মলয় ঘটক, গৌতম দেব, রবীন্দ্রনাথ ঘোষ নিহতদের পরিবারে গিয়ে দেখা করেন। মুখ্যমন্ত্রী মৃতদের পরিবারে ২.৫০ লক্ষ টাকা এবং আহতদের পরিবারের জন্য ৫০ হাজার টাকা ক্ষতিপূরণ ঘোষণা করেন।

[আরও পড়ুন- কয়েকটা দুষ্টু গরু ছেড়ে গেছে, ভালই হয়েছে, পাপ বিদায় হয়েছে, কালনা থেকে দলবদলুদের খোঁচা মমতার]

বিজেপির তরফে দিলীপ ঘোষ, জয়ন্ত রায়, বাপি গোস্বামীর মত নেতারাও নিহতদের পরিবারে যান। ক্ষতিপূরণের ঘোষণা করেন প্রধানমন্ত্রীও। মৃতদের জন্য ২ লক্ষ টাকা এবং আহতদের জন্য ৫০ হাজার টাকা ঘোষণা করেন তিনি।

কিন্তু অভিযোগ ওঠে মুখ্যমন্ত্রী প্রতিশ্রুতি মত ক্ষতিপূরণের টাকা দিলেও প্রধানমন্ত্রীর প্রতিশ্রুতিমত সেই টাকা এখনও এসে পৌঁছায়নি। ময়নাগুড়ির রানিরহাট মোড় এলাকার বাসিন্দা পরমানন্দ রায়, বিজেপির স্থানীয় বুথ সভাপতি। সেদিনের দুর্ঘটনায় পরমানন্দবাবুর ছেলে ও দুই নাতির মৃত্যু হয়। পুত্রবধূ আহত হন। পরমানন্দবাবু বলেন, মুখ্যমন্ত্রী কথামত ক্ষতিপূরণের টাকা দিয়েছেন। কিন্তু প্রধানমন্ত্রীর প্রতিশ্রুতিমত টাকা এখনও পাননি তাঁরা। তিনি আরও জানান, মুখ্যমন্ত্রী সেইসময় পাশে দাঁড়িয়েছিলেন বলে অনেক সুবিধা হয়েছে। তার অভিযোগ দেখা মেলেনি বিজেপি নেতাদের।

 

 

 

Comments
Loading...