ইমাম ভাতার পর এবার ব্রাহ্মণ ভাতার উদ্যোগ? নিজে দরবার করবেন মুখ্যমন্ত্রীর কাছে, আশ্বাস মন্ত্রী রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়ের

এবার পুরোহিতদের ভাতা দেওয়ার ব্যাপারে উদ্যোগী হচ্ছে রাজ্য সরকার। শুক্রবার রানি রাসমণি অ্যাভিনিউয়ে ব্রাহ্মণদের এক সংগঠনের সভা থেকে রাজ্যের তফশিলি জাতি ও অনগ্রসর শ্রেণি উন্নয়ন মন্ত্রী রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায় জানান, পুরোহিতদের ভাতা দেওয়ার ব্যাপারে মুখ্যমন্ত্রীর কাছে দরবার করবেন তিনি। তিনি বলেন, যে ব্রাহ্মণরা মানুষের মঙ্গল কামনা করে পুজো দেন, তাঁদের অনেকের মাথায় ছাদ নেই। তীব্র আর্থিক অনটনের মধ্যে দিয়ে বেঁচে আছেন। তাই তাঁদের ভাতার দাবি ন্যায্য বলে মন্তব্য করেন রাজ্যের মন্ত্রী। সেই সঙ্গে রাজ্যের স্বাস্থ্যসাথী বিমা প্রকল্পে পুরোহিতদের আনার বিষয়েও আশ্বাস দেন রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়।
কিছুদিন আগে কলকাতা পুরসভার শ্মশানঘাটের পুরোহিতদের জন্য ভাতা চালু করার কথা ঘোষণা করেছিলেন মেয়র ফিরহাদ হাকিম।
অন্যদিকে, তৃণমূল সরকারের আমলে মোয়াজ্জেন ও ইমামদের মাসিক ভাতা চালু করার পর থেকেই বিজেপি সহ বিভিন্ন হিন্দু সংগঠন পুরোহিতদের মাসিক ভাতা চালুর ব্যাপারে দাবি জানিয়ে আসছে। ইমাম ভাতার আইনি বৈধতা নিয়ে আদালতের দ্বারস্থ হয় বিজেপি। এই প্রেক্ষিতে শুক্রবার পুরোহিতদের ভাতার দাবি মেনে নিয়ে কার্যত পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সনাতন ব্রাক্ষণ ট্রাস্টকে স্বীকৃতি দিলেন রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়, বলে মনে করছেন রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা। মন্ত্রী রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায় ওই সভায় মন্তব্য করেন, অন্য সম্প্রদায়ের মানুষ ভাতা পাচ্ছেন, তাতে কোনও আপত্তি নেই। তবে গরিব পুরোহিতদের ভাতার দাবিও ন্যায্য।
শুক্রবার বেশ কয়েক দফা দাবি নিয়ে ব্রাহ্মণ সংগঠনটি আলোচনা করে। যার মধ্যে অন্যতম ছিল তাঁদের ভাতা চালু করার দাবি। সেই সঙ্গে সংগঠনের তরফে প্রত্যেক জেলায় ব্রাহ্মণ সন্তানদের জন্য সংস্কৃত কলেজ বা পঞ্চায়েত এলাকায় একটি করে টোল তৈরির দাবিও তোলা হয়। যা নিয়ে রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, তিনি বিষয়টি নিয়ে শিক্ষামন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনা করবেন।

Comments
Loading...