লকডাউনের দোহাই দিয়ে ভারতে এক ধাক্কায় ৬০০ কর্মীকে ছেঁটে ফেলল উবর

প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী ওলার রাস্তা ধরে এবার উবর ইন্ডিয়াও তাদের ৬০০ কর্মীকে ছেঁটে ফেলার কথা ঘোষণা করল।

আয় কমার কারণ দেখিয়ে গত সপ্তাহে ১,৪০০ কর্মী ছাঁটাইয়ের কথা ঘোষণা করেছিল অ্যাপ ক্যাব সংস্থা ওলা। আর লকডাউনের চতুর্থ পর্বে, মঙ্গলবার বিভিন্ন বিভাগের ৬০০ কর্মীকে ছেঁটে ফেলার কথা জানানো হল উবর (Uber) এর তরফে। ভারতে তাদের প্রায় ২,৪০০ কর্মীর মধ্যে এক ধাক্কায় ২৫ শতাংশ কর্মীকে ছেঁটে ফেলছে এই বহুজাতিক অ্যাপ ক্যাব সংস্থা। এঁদের মধ্যে রয়েছেন ড্রাইভার, বিজনেস ডেভেলপমেন্ট, লিগাল, ফিন্যান্স বিভাগের কর্মচারী।

উবর ইন্ডিয়া এক বিবৃতিতে জানায়, করোনাভাইরাসের কারণে প্রায় ৬০০ পূর্ণ-সময়ের কর্মচারীকে ছাঁটাই করতে বাধ্য হচ্ছে তারা।

উবরের ভারত এবং দক্ষিণ এশিয়ার প্রেসিডেন্ট প্রদীপ পরমেশ্বরণ এক বিবৃতিতে বলেন, তাঁদের এই পদক্ষেপে ড্রাইভার সহ অন্যান্য বিভাগেও প্রায় ৬০০ জন পূর্ণ সময়ের কর্মী প্রভাবিত হচ্ছেন। তবে এই ছাঁটাই বিশ্বব্যাপী কর্মসংস্থান হ্রাসেরই একটি অংশ বলে মন্তব্য করেন তিনি।

পরমেশ্বরণ আরও বলেন, কোভিড-১৯ এর প্রভাবে প্রভূত ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে সংস্থা। কবে এই পরিস্থিতি স্বাভাবিক হবে তার কোনও নিশ্চয়তা নেই। ফলে উবর ইন্ডিয়ার কাছে কর্মী সংখ্যা হ্রাস করা ছাড়া অন্য বিকল্প খোলা নেই। সংস্থার পক্ষে এই দিনটি ‘অত্যন্ত দু:খের’ বলে জানানো হয় ওই বিবৃতিতে।

উবর ইন্ডিয়া জানিয়েছে, যে কর্মচারীদের ছাঁটাই করা হয়েছে, তাঁদের ১০ থেকে ১২ সপ্তাহের মাইনে দেওয়া হবে। সেই সঙ্গে আগামী ছয় মাস তারা স্বাস্থ্যবিমার সুরক্ষাও পাবেন। এছাড়া সংস্থার তরফে আউট প্লেসমেন্ট সাপোর্টও দেওয়া হবে।

করোনা সংক্রমণ রোধ করতে দীর্ঘ লকডাউন চলছে দেশে। এর জেরে অর্থনীতি স্থবির হয়ে পড়েছে। দেশের বিভিন্ন সেক্টরে লাগাতার চলছে কর্মী ছাঁটাই। এবার তাতে যুক্ত হল উবর ইন্ডিয়াও। গত সপ্তাহেই উবর মার্কিন মুলুকে কয়েক মিনিটের জুম কলের মাধ্যমে ৩ হাজার ৭০০ কর্মীকে ছাঁটাই করে ১৪ শতাংশ কর্মী সংকোচন করে। তা নিয়ে প্রবল সমালোচনার মুখে পড়ে সংস্থা। এবার ছাঁটাই হল ভারতেও।

Comments
Loading...