বিজেপিতে শুভেন্দু! কী করবেন শিশির-দিব্যেন্দু, কেন তৃণমূলের প্রকাশ্য কর্মসূচিতে নেই সাংসদ পিতা-পুত্র?

শনিবার মেদিনীপুর কলেজ মাঠে সভা করবেন অমিত শাহ। সেই সভাতে বিজেপিতে যোগ দেবেন শুভেন্দু অধিকারী। ঠিক ১০ দিন আগে এই মাঠে সভা করে গিয়েছেন মমতা ব্যানার্জি। মমতার সভায় দেখা যায়নি শুভেন্দুর বাবা তথা বর্ষীয়ান তৃণমূল সাংসদ শিশির অধিকারীকে। আসেননি শুভেন্দুর ভাই দিব্যেন্দু অধিকারীও। এমনকি গত মাসখানেক ধরে তৃণমূলের কোনও প্রকাশ্য কর্মসূচিতে দেখা যায়নি শিশির অধিকারী বা দিব্যেন্দু অধিকারীকে। 

শুভেন্দু অধিকারী তৃণমূল ছেড়েছেন। কিন্তু এখনও দলেই আছেন তাঁর বাবা শিশির অধিকারী ও ভাই দিব্যেন্দু অধিকারী। অধিকারী বাড়িরই আর এক ছেলে কাঁথি পুরসভার চেয়ারম্যান সৌমেন্দু অধিকারী। তাঁকেও ৭ তারিখ মমতার সভায় দেখা যায়নি। 

তৃণমূল সূত্রে খবর, দলের তরফে শিশির-দিব্যেন্দুর সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়েছে একাধিকবার কিন্তু সাড়া মেলেনি। তাই তাঁরা কী করবেন সে বিষয়ে স্পষ্ট ধারণা নেই পার্টির। শুভেন্দু অধ্যায়ের পর অধিকারী বাড়ির গন্তব্য কোনদিকে তা নিয়ে ব্যাপক ধন্দ রয়েছে। 

অভিষেক-পিকের সঙ্গে বৈঠকের পরই স্পষ্ট হয়ে গিয়েছিল তৃণমূলে ভবিষ্যৎ দেখছেন না সদ্য প্রাক্তন পরিবহণ মন্ত্রী। সেই সময় অবশ্য শিশির, দিব্যেন্দু দুজনেই জানিয়েছিলেন তাঁরা নেত্রীর সঙ্গেই থাকবেন। পূর্ব মেদিনীপুরের তৃণমূলের সভাপতি হিসেবে মেদিনীপুর কলেজ মাঠের সভায় শিশিরকে আমন্ত্রণও জানান মমতা। কিন্তু সভার দিন অধিকারী বাড়ির কাউকেই দেখা যায়নি মেদিনীপুর কলেজ মাঠে। তারপর থেকেই তৃণমূলের অন্দরে সন্দেহ ঘনীভূত হয়। তৃণমূল সূত্রে খবর, দল বুঝতে পারছে শুভেন্দু বিজেপিতে যোগ দিলে, শিশির-দিব্যেন্দুর পক্ষে পূর্ব মেদিনীপুর জেলায় তৃণমূলের হয়ে কর্মসূচিতে সক্রিয় হওয়া কঠিন। কিন্তু বর্ষীয়ান নেতা নিজে মুখে এনিয়ে একটি কথাও বলেননি। তাই খানিক দোলাচলে তৃণমূলও।  

শনিবার সেই মেদিনীপুর কলেজ মাঠেই অমিত শাহের সভায় গেরুয়া পতাকা হাতে তুলে নেবেন শুভেন্দু অধিকারী। সেই মঞ্চেই আরও কয়েকজন তৃণমূল নেতার বিজেপিতে যোগ দেওয়ার কথা। এই অবস্থায় বড়ো প্রশ্ন হয়ে সামনে আসছে, কী করবেন শিশির-দিব্যেন্দু অধিকারী?

Comments
Loading...