কতজন ছাড়ছেন দল, চূড়ান্ত তালিকা দেখে পরবর্তী পদক্ষেপ মমতার! ফের জেলা সফরের প্রস্তুতি শুরু তৃণমূল নেত্রীর

অমিত শাহের ১৯ তারিখের সভায় শুভেন্দু ছাড়া তৃণমূলের আর কতজন মন্ত্রী, বিধায়ক ও নেতা দল ছাড়বেন? এ নিয়ে জল্পনার অন্ত নেই। এবারের কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর বঙ্গ সফরের দিকে নজর থাকছে খোদ তৃণমূল নেত্রী মমতা ব্যানার্জির। একুশের নির্বাচনকে পাখির চোখ করে তৃণমূল নেত্রী প্রচারে নেমে পড়েছেন। এদিকে অব্যাহত দলের ভাঙন। দলের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দিচ্ছেন তাবড় তাবড় নেতা। এই প্রেক্ষিতে অমিত শাহের সভার পর পুরুলিয়া ও মেদিনীপুরে সভা করবেন মমতা ব্যানার্জি।
বৃহস্পতিবার তৃণমূলের সদস্যপদ ছেড়ে দেওয়া শুভেন্দু অধিকারীর বিজেপিতে যোগদান স্রেফ সময়ের অপেক্ষা। কিন্তু তাঁর সঙ্গে আর কতজন এবং কোন কোন নেতা দল ছাড়ছেন, সে দিকে নজর রেখেই রাজনৈতিক ঘুঁটি সাজাচ্ছেন মমতা। গত নভেম্বর থেকে জেলায় জেলায় সভা শুরু করেছেন তৃণমূল নেত্রী। দক্ষিণবঙ্গের বাঁকুড়া, পশ্চিম মেদিনীপুর, উত্তর ২৪ পরগনার বনগাঁর পর উত্তরবঙ্গেও দু’ দুটি জনসভা সেরে ফেলেছেন। সেখান থেকে বিক্ষুব্ধ ও দলত্যাগী নেতা- মন্ত্রীদের উদ্দেশে তাঁর কটাক্ষ ছিল, দু’একজন জোয়ারে আসে আর ভাটায় চলে যায়। আয়ারাম- গয়ারামদের জন্য দলের কিছু যায় আসবে না বলে মনে করেন মমতা। এদিকে শুভেন্দু ইস্তফা দিতে তাঁকে চাঁচাছোলা ভাষায় আক্রমণ শানিয়েছেন তৃণমূল নেতৃত্ব। কেউ ‘দুষ্টু গরু’ কেউ আবার ‘বিশ্বাসঘাতক’ বলে তকমা দিয়েছেন নন্দীগ্রামের সদ্য প্রাক্তন বিধায়ককে।
কিন্তু তৃণমূলে বিক্ষুব্ধ নেতা- মন্ত্রীদের সংখ্যা ক্রমশ বৃদ্ধি পাচ্ছে। যা ভাবাচ্ছে দলের শীর্ষ নেতৃত্বকে। বুধবার বিধায়ক পদ থেকে ইস্তফা দিয়েই সোজা পূর্ব বর্ধমানের সাংসদ সুনীল মণ্ডলের সঙ্গে দেখা করতে চলে যান শুভেন্দু। সেখানে আবার আগে থেকেই উপস্থিত ছিলেন আসানসোলের পুর প্রশাসকের পদ এবং পরে দল ছেড়ে দেওয়া জিতেন্দ্র তিওয়ারি এবং কর্নেল দীপ্তাংশু চৌধুরী। আর এই বৈঠকের পরদিনই অর্থাৎ, বৃহস্পতিবার এসবিএসটিসি-র চেয়ারম্যানের পদ থেকে ইস্তফা দিয়েছেন একসময়ে মমতার আস্থাভাজন নেতা কর্নেল দীপ্তাংশু। অন্যদিকে জিতেন্দ্র তিওয়ারি দল ছাড়ার পর পশ্চিম বর্ধমানে কার্যত তৃণমূল ছাড়ার ধুম পড়ে গিয়েছে। অমিত শাহের সভার আগে এই তৃণমূল নেতাদের দল ও পদ যথেষ্টই ইঙ্গিতপূর্ণ। সেদিকে নজর দিয়েই মমতার পরবর্তী সভা থাকছে দুই জেলায়। তার আগে তৃণমূল নেতৃত্বের নজর থাকছে ১৯ ডিসেম্বর অমিত শাহের সভার দিকে।

Comments
Loading...