দাবি পূরণে বেনজির লড়াই, বারাণসীতে মোদীর বিরুদ্ধে লড়বেন তামিলনাড়ুর ১১১ কৃষক!

ধরনা-বিক্ষোভ-আন্দোলন-পদযাত্রা। কিছুতেই কৃষকদের দিকে নজর ফেরানো যায়নি নরেন্দ্র মোদীর। তাই এবার নজিরবিহীনভাবে বারাণসী কেন্দ্রে নরেন্দ্র মোদীর বিরুদ্ধে লড়াই করার সিদ্ধান্ত নিলেন তামিলনাড়ুর ১১১ জন গরীব কৃষক।

কেন্দ্রীয় সরকারের বিরুদ্ধে কৃষকদের বঞ্চনার অভিযোগে ও ফসলের ন্যায্য মূল্যের দাবিতে আগেই রাজধানী দিল্লির রাজপথে নেমেছিলেন দেশের কৃষকরা। তাদের আন্দোলন নিয়ে সেসময় উত্তাল হয়েছিল রাজধানী। কিন্তু অভিযোগ, ফিরেও তাকায়নি কেন্দ্রীয় সরকার। তাই এবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর বিরুদ্ধে তাঁর লোকসভা কেন্দ্রে ১১১ জন কৃষক মনোনয়নপত্র জমা দিতে চলেছেন।
শনিবার তামিলনাড়ুর ন্যাশনাল সাউথ ইন্ডিয়ান রিভারস ইন্টার লিংকিং ফার্মারস অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি পি আয়াকান্নু সংবাদ মাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে জানান, ফসলের ন্যায্য দাম সহ কৃষকদের একাধিক দাবিকে সামনে রেখে উত্তর প্রদেশে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর বিরুদ্ধে প্রার্থী দেবেন তাঁরা।
কৃষক আন্দোলনের অন্যতম নেতা পি আয়াকান্নু সংবাদ মাধ্যমকে বলেন, কৃষকদের দাবি পূরণের নিশ্চয়তা দিলে তবেই এই সিদ্ধান্ত থেকে সরবেন তাঁরা। তাঁদের এই সিদ্ধান্তের পেছনে যে সারা দেশের কৃষক ও কৃষক সংগঠনের সমর্থন রয়েছে তাও জানিয়েছেন তিনি।
কিন্তু শুধুমাত্র বিজেপির বিরুদ্ধেই তাঁদের এই দাবি কেন? তামিলনাড়ুর শাসক দল বা বিজেপির প্রধান বিরোধী দলগুলির বিরুদ্ধে তাঁরা লড়ছেন না কেন? সাংবাদিকদের এই প্রশ্নের উত্তরে কৃষক নেতা জানান, বিজেপিই এখন কেন্দ্রে ক্ষমতায়, আর নরেন্দ্র মোদী প্রধানমন্ত্রী। ক্ষমতায় আসার আগে নরেন্দ্র মোদী প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন কৃষকদের স্বার্থরক্ষা করবেন। তাঁদের আয় দ্বিগুণ করবেন। তাই শাসক দল ও প্রধানমন্ত্রীই তাঁদের একমাত্র প্রতিপক্ষ বলে ঘোষণা পি আয়াকান্নুর। ইতিমধ্যে, তামিলনাড়ুর তিরুবান্নামালাই, তিরুচিরাপল্লি ইত্যাদি জেলা থেকে ৩০০ জন কৃষকের ট্রেনের টিকিট বুক করে ফেলেছেন বলে জানান কৃষক নেতা। গন্তব্য নরেন্দ্র মোদীর লোকসভা কেন্দ্র বারাণসী।
গত বছরের নভেম্বর মাসে আয়াকান্নুর নেতৃত্বে দিল্লির রাজপথে মিছিল করেন তামিলনাড়ুর কৃষকরা। তাঁদের হাতে ছিল দু’টি মাথার খুলি। ঋণের দায়ে আত্মহত্যা করা কৃষকদের প্রতিনিধি হিসেবে খুলি নিয়ে রাস্তায় হেঁটে তাঁদের এই প্রতিবাদ বলে জানিয়েছিলেন আয়াকান্নুরা।

Comments
Loading...