স্বাস্থ্যে ১২ হাজার লোক নেবে রাজ্য সরকার, ৮ হাজারের বেশি নার্স ছাড়াও নিয়োগ বিভিন্ন পদে

স্বাস্থ্যক্ষেত্রে প্রায় ১২ হাজার কর্মী নিয়োগ করছে রাজ্য সরকার। ওয়েস্ট বেঙ্গল হেলথ রিক্রুটমেন্ট বোর্ড (ডব্লুবিএইচআরবি) সূত্রে খবর, ১২ হাজার কর্মীর মধ্যে ৮ হাজার ১৫৯ জন নার্স ও ৮১৯ জন ফেসিলিটি ম্যানেজার ছাড়াও ফুড ইন্সপেক্টর, ফার্মাসিস্ট, মেডিকেল টেকনোলজিস্ট, লাইব্রেরিয়ান ইত্যাদি পদেও নিয়োগ করা হবে। সূত্রের খবর, বেশ কিছু সরকারি হাসপাতালে ইতিমধ্যেই নার্স সহ অন্যান্য ক্ষেত্রে কর্মী নিয়োগ পর্ব শুরু হয়ে গিয়েছে।
স্বাস্থ্য দফতর সূত্রে খবর, ৮ হাজারের বেশি জিএনএম, বেসিক বিএসসি নার্স এবং পোস্ট বেসিক বিএসসি নার্স নিয়োগ সম্পন্ন হলে, এখন সরকারি হাসপাতালগুলিতে যত নার্স দরকার তার অনেকটাই পূরণ হয়ে যাবে। ৮ হাজার ১৫৯ জন নার্সের মধ্যে বিভিন্ন সরকারি হাসপাতালে ২০০-র বেশি পুরুষ নার্স নিয়োগ করা হবে।
কিছুদিন আগেই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ঘোষণা করেছিলেন, চিকিৎসা ক্ষেত্রে ভিন রাজ্যের ডাক্তারদেরও এ রাজ্যে স্বাগত। যা নার্সিং ক্যাডার নিয়োগে ইতিমধ্যেই বাস্তবায়িত হচ্ছে। কেরল, ঝাড়খণ্ড, ওড়িশা সহ বেশ কয়েকটি রাজ্য থেকে প্রচুর সংখ্যক নার্স নিয়োগ করছে রাজ্যে সরকার। ইতিমধ্যেই নার্সরা রাজ্যের বিভিন্ন সরকারি হাসপাতালে যোগ দিয়েছেন। তাছাড়া রুটিন ভিত্তিতে মাসে মাসে চিকিৎসক নিয়োগের কাজও চলছে বলে স্বাস্থ্য দফতর সূত্রে খবর।
সরকারি হাসপাতাল ও মেডিক্যাল কলেজগুলিতে ৮০০-র বেশি ওয়ার্ড মাস্টার বা ফেসিলিটি ম্যানেজার নিয়োগ করা হচ্ছে। ওয়াকিবহাল মহলের মতে, আজকের দিনে দাঁড়িয়েও ওয়ার্ড মাস্টারদের কাজ যে অন্য কোনও জব চার্টের ক্যাডাররা করতে পারবেন না, সেটা বুঝতে পেরেছে স্বাস্থ্য দফতর। তাই এবার ৮১৯ জন ফেসিলিটি ম্যানেজার নিয়োগের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।
রাজ্য স্বাস্থ্য দফতরের কর্মী নিয়োগকারী সংস্থা ওয়েস্ট বেঙ্গল হেলথ রিক্রুটমেন্ট বোর্ডের চেয়ারম্যান তাপস মণ্ডল জানান, কর্মী নিয়োগকারী সংস্থার স্বচ্ছতা নিয়ে যাতে কেউ কোনও প্রশ্ন তুলতে না পারে তার জন্য সতর্ক দৃষ্টি থাকবে তাঁদের। তিনি জানান, কয়েক মাসের মধ্যেই প্রায় ১২ হাজার নার্স ও বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মী নিয়োগের কাজ শেষ করা হবে।

Comments
Loading...