২১ জুলাইয়ের প্ৰস্তুতি তৃণমূলের, কোথায় কীভাবে পালিত হবে শহিদ দিবস

২১ শের ২১ শে জুলাই। বুধবার তৃণমূলের ঐতিহাসিক ২১ শে জুলাই। এইবছর শহীদ দিবস ২৮ বছর পূর্ণ করবে। তৃতীয়বার ক্ষমতায় আসার পর এটা তৃণমূলের প্ৰথম ২১ জুলাই। অন্যদিকে এই বছর ২১ শের মাহাত্ম্য অনেকটা বেশি, কারণ বাংলা ছাড়িয়ে পাড়ি দিচ্ছে ভিন রাজ্যে। তাই ২১ শের ২১ জুলাই নিয়ে আগ্রহ সব রাজনৈতিক দলের।

মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি আগেই জানিয়ে দিয়েছিলেন, করোনা আবহে এই বছরও ভার্চুয়ালি ভাষণ দেবেন তিনি। আর সেই ভাষণ পৌঁছে যাবে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে। তৃণমূল সূত্রে খবর, কালীঘাটে মমতা ব্যানার্জির ভাষণ শুরু হবে দুপুর ২ টোর সময়। সেখানে উপস্থিত থাকবেন অভিষেক ব্যানার্জি, সুব্রত বক্সী, পার্থ চ্যাটার্জি। প্রতিটি বিধানসভা কেন্দ্রে বড় জায়ান্ট স্ক্রিন লাগিয়ে সভা করা হবে। সেই জায়ান্ট স্কিনে মুখ্যমন্ত্রীর ভাষণ শোনানো হবে। সভামঞ্চে বেশি ভিড় করা যাবে না। সেখানে শুধুমাত্র থাকবেন স্থানীয় বিধায়ক, এলাকার কাউন্সিলর। দুপুর ১ টা থেকে সেইসব মঞ্চে ভাষণ দেবেন বিধায়ক ও কাউন্সিলর। শহরের বেশকিছু জায়গায় জায়ান্ট স্ক্রিনের ব্যবস্থা করা হয়েছে। শ্যামবাজার, গিরিশ পার্ক, লেকটাউন, পার্ক স্ট্রিট, এসপ্ল্যানেড, টালিগঞ্জ, হাজরার মত জনবহুল জায়গায় বসানো হবে জায়ান্ট স্ক্রিন।

নিয়ম মেনে ধর্মতলায় শহিদ তর্পণ দেওয়া হবে দুপুর ১২টার সময়। সেখানে থাকবেন তৃণমূলের প্ৰথম সারির নেতারা।

রাজ্যে বিজেপিকে হারিয়ে বিধানসভা নির্বাচনে জয়ের পর তৃণমূল ঘোষণা করেছিল এ বার তারা অন্য রাজ্যেও ছড়িয়ে পড়বে। লোকসভা নির্বাচনকে মাথায় রেখে তৃণমূলের সর্বভারতীয় সম্পাদক অভিষেক ব্যানার্জি দায়িত্ব নিয়েই জানিয়েছিলেন, ভিন রাজ্যেও তিনি তৃণমূলের সংগঠন তৈরি করবেন। বিজেপিকে রাজ্যে পরাস্ত করার পর গোটা দেশের বিরোধী মুখ হয়ে উঠেছেন মমতা ব্যানার্জি। এবারের ২১ শে জুলাই তাই উত্তর-পূর্ব ভারত, দিল্লিতে অনুষ্ঠিত হবে। দিল্লিতে তৃণমূল সাংসদদের উপস্থিতিতে পালিত হবে ২১ জুলাই। এছাড়াও মোদী গুজরাটেও মমতার ভাষণ শোনানো হবে। ৩২ টি জেলায় জায়ান্ট স্কিনের ব্যবস্থা করা হয়েছে।

উত্তরপ্রদেশের লখনউ, মির্জাপুর, বেনারস, আজমগড়,বরেলিতে মোমবাতি জ্বালিয়ে শ্রদ্ধা জানানো হবে শহীদদের।
ত্রিপুরার আগরতলায় হবে সাইকেল র‍্যালি। কৈলাশ হর, ধর্মনগর, উদয়পুর, আমবাসা, আগরতলা শহরে জায়ান্ট স্ক্রিনে শোনানো হবে বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জির ভাষণ।

দক্ষিণের রাজ্যগুলিতেও মমতার ভাষণ পৌঁছে দেওয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে। তামিলনাড়ুর বেশ কয়েকটি জায়গায় জায়ান্ট স্ক্রিনের ব্যবস্থা করা হয়েছে। আসামের গুয়াহাটি, শিলচরে পালিত হবে ২১ জুলাই। বিহার, ঝাড়খন্ডেও পালিত হতে চলেছে তৃণমূলের ২১ জুলাই।

এছাড়াও ২১ শে জুলাই তৃণমূলে যোগদান করতে পারেন কিছু হেভিওয়েট নেতা।

Comments
Loading...