২১ জুলাই উপলক্ষ্যে বিশেষ ট্রাম যাত্রার উদ্বোধন করলেন শোভনদেব

তৃণমূল নেত্রী মমতা ব্যানার্জি আগেই জানিয়েছিলেন গত বারের মত এবারেও ভার্চুয়ালি একুশে জুলাই পালন করা হবে। ভার্চুয়ালি পালন করা হলেও দলের জন্য গুরুত্বপূর্ণ এই দিনটিকে বিশেষভাবে উদযাপনে কোনও রকম ফাঁক রাখতে চাইছে না কর্মী সমর্থকরা। মঙ্গলবার সেই প্রয়াসেরই এক ঝলক দেখা গেল।

একুশে জুলাই উপলক্ষে মঙ্গলবার ট্রাম যাত্রার সূচনা করলেন দলের বর্ষীয়ান নেতা তথা মন্ত্রী শোভনদেব চ্যাটার্জি। এদিন নোনাপুকুর ট্রাম ডিপোতে ট্রাম যাত্রার উদ্বোধন করেন তিনি। তৃণমূল সুপ্রিমোর ছবির পাশাপাশি একুশে জুলাই সংক্রান্ত একাধিক ছবির কোলাজ দিয়ে এই ট্রাম সাজানো হয়েছে। ১৯৩৩ সালে একুশে জুলাই মহাকরণ অভিযানের সময় যে ঘটনা ঘটেছিল তারও একাধিক ছবি রয়েছে ট্রামটিতে। শহরের বিভিন্ন জায়গায় ঘুরবে এই ট্রাম।

এদিন মন্ত্রী শোভনদেব চ্যাটার্জি বলেন, সাধারণ মানুষের স্বার্থে নেত্রী মমতা ব্যানার্জি আন্দোলন করেছিলেন। এই আন্দোলনের পথে অনেক বাধা বিপত্তি এসেছে, অকথ্য অত্যাচার করা হয়েছে। তাও মমতা ব্যানার্জি নিজের অবস্থান থেকে সরে দাঁড়াননি। এই কথাটা নতুন প্রজন্মে যাঁরা দলে আসছেন তাঁদের মনে রাখতে হবে।

রাত পেরোলেই একুশে জুলাই। অন্যান্যবার আজকের দিনে ইতিমধ্যেই বিভিন্ন জেলা থেকে হাজার হাজার তৃণমূলের কর্মী সমর্থক কলকাতায় এসে হাজির হতেন। তবে এবার ভার্চুয়ালি হওয়ায় সেসব কিছুই হচ্ছে না।

যদিও করোনা বিধি মেনেই একুশে জুলাই নিয়ে রাজ্যের প্রতিটি ব্লকে, ওয়ার্ডে কর্মীদের ব্যস্ততা তুঙ্গে। গুরুত্বপূর্ণ জায়গায় বসানো হচ্ছে জায়ান্ট স্ক্রীন। শহরেও একাধিক জায়গায়  জায়ান্ট স্ক্রীন বসিয়ে নেত্রীর বক্তব্য শোনানোর ব্যবস্থা করা হয়েছে। এবারে রাজ্যের বাইরে একাধিক জায়গায় একুশে জুলাই পালন করা হবে বলে তৃণমূলের তরফে জানানো হয়েছে।

উত্তরপ্রদেশ, গুজরাট, ত্রিপুরার একাধিক জায়গায়  জায়ান্ট স্ক্রীনের মাধ্যমে একুশে জুলাইয়ের অনুষ্ঠান সম্প্রচারিত হবে বলে খবর।

Comments
Loading...