শহিদ ১৩ জনকে জানাই আমার আন্তরিক শ্রদ্ধা, ২১ এর সকালে টুইট মমতার

১৯৯৩ সালের এই দিনে শহিদ ১৩ জনের আমার প্রতি আন্তরিক শ্রদ্ধা। সাহসী আত্মাদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে দুপুর ২ টোর সময় ভার্চুয়ালি সভায় যোগ দিতে ভাই বোনদের আমন্ত্রণ জানাচ্ছি। ২১ শে জুলাইয়ের সকালে টুইট করে এই বার্তা দিলেন বাংলার মুখ্যমন্ত্ৰী মমতা ব্যানার্জি।

তিনি টুইটে আরও জানান, যারা অমানবিক, নৃশংস অত্যাচার চালাচ্ছে, তাদের বিরুদ্ধে আমরা জোর গলায় আওয়াজ তুলব।

বুধবার তৃণমূলের ২১শে জুলাইয়ের শহিদ দিবস। আগেই মুখ্যমন্ত্ৰী জানিয়ে দিয়েছিলেন, করোনা পরিস্থিতিতে এবারও ভার্চুয়াল মাধ্যমে তিনি ভাষণ দেবেন। গোটা ভারতে তাঁর বক্তব্য পৌঁছে দেওয়ার ব্যবস্থা করেছে তৃণমূল। বক্তৃতার মাধ্যমে মোদী-শাহকে নিশানা করে বিজেপি এবং কেন্দ্রীয় সরকারকে কড়া ভাষায় আক্রমণ করবেন তিনি।
বাংলার পাশাপাশি হিন্দিতেও বক্তৃতা দেবেন মমতা ব্যানার্জি।

অন্যদিকে শহিদ দিবসের সকালে টুইট করেছেন তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক ব্যানার্জি। তিনি লিখেছেন,  ১৯৯৩ সালের সেই স্মৃতি এখনও আমাদের মনে টাটকা। সেইসময়কার সরকারের নিষ্ঠুর অত্যাচারের কারণে ১৩ জন শহিদ হয়েছিলেন। কোনওদিনও তা ভোলা যাবে না।

উল্লেখ্য, ১৯৯৩ সালের ২১ জুলাই তৎকালীন যুব কংগ্রেস নেত্রী মমতা ব্যানার্জির নেতৃত্বে সচিত্র পরিচয়পত্রের মাধ্যমেই ভোটাধিকার দেওয়ার দাবিতে মহাকরণের দিকে এগিয়েছিলেন যুব কংগ্রেসের সমর্থকরা। তাঁদের ওপর নির্মমভাবে গুলি চালিয়েছিল পুলিশ। পুলিশের গুলিতে শহিদ হয়েছিলেন ১৩ জন। আহত হয়েছিলেন আরও অনেকে।
এরপর থেকে ওইদিনকে স্মরণ করে শহিদ দিবসের আয়োজন করে তৃণমূল।

Comments
Loading...