২১ বছরেই মেয়র! দেশের কনিষ্ঠতম মেয়র হিসেবে রেকর্ড গড়ছেন আর্যা, সাহসী সিদ্ধান্ত কেরল সিপিএমের

কেরলের পুরসভা ও ত্রিস্তর পঞ্চায়েত ভোটে এবার বহু নবীন মুখকে প্রার্থী করেছিল সিপিএম। তাঁদের মধ্যে অনেকেই জয় পেয়েছেন। সব মিলিয়ে কেরলের  তিরুবনন্তপুরমের পুরসভা ভোটে ১০০ টি ওয়ার্ডের ৫১ টিতেই জয় পায় কেরলের বাম জোট। এবার সেই জয়ী প্রার্থীদের মধ্যে মুদাভানমুগলের কাউন্সিলর হিসেবে জয়ী হওয়া একুশ বছরের তরুণীকে কেরলের রাজধানীর মেয়র হিসেবে মনোনীত করে ঐতিহাসিক সিদ্ধান্ত নিল পিনারাই বিজয়নের দল।
অঙ্ক অনার্সের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রী আর্যা রাজেন্দ্রন দেশের কনিষ্ঠতম মেয়র হিসেবে রেকর্ড গড়তে চলেছেন।
ইলেকট্রিক মিস্ত্রী কে এম রাজেন্দ্রনের মেয়ে আর্যার ছোট থেকেই বাম রাজনীতিতে আগ্রহ। কে এম রাজেন্দ্রনের কথায়, আমাদের পরিবারের মধ্যে রাজনীতি চর্চা বহুদিনের। তাই এই পরিমণ্ডলে বেড়ে ওঠা অল উইম্যান অল সেন্টস কলেজের অঙ্ক অনার্সের মেধাবী ছাত্রী আর্যার বাম রাজনীতিতে আগ্রহ সেই ক্লাস ফাইভ থেকে।
তিরুবনন্তপুরমে ভাড়া বাড়িতে থাকে আর্যার পরিবার। বাবা পেশায় ইলেকট্রিক মিস্ত্রী, মা শ্রীলতা এলআইসি এজেন্ট এবং দাদা অরবিন্দ অটোমোবাইল ইঞ্জিনিয়ারিং করে চাকরি করছেন। পাশাপাশি তিনিও সিপিএম পার্টির সদস্য।
কলেজ জীবনের শুরুতেই বাম ছাত্র সংগঠন এসএফআই’র সদস্যপদ গ্রহণ করেন আর্যা। তবে সক্রিয় রাজনীতির সঙ্গে সঙ্গে পড়াশোনা সমানতালে চালিয়ে গিয়েছেন তিনি। ক্যার্মেল গার্লস হায়ার সেকেন্ডারি স্কুল থেকে অল সেন্টস কলেজ, কোনও প্রতিষ্ঠানেই ক্যাম্পাস রাজনীতি করা যায় না। এই প্রেক্ষিতে রাজনীতিতে প্রবল আগ্রহী আর্যা একসময়ে ভেবেছিলেন পড়াশোনার পাশাপাশি রাজনীতিটা হয়ত আর করা হবে না। বাম ছাত্র সংগঠনের বিভিন্ন কাজে অংশ নেওয়ার পাশাপাশি নিয়মিত ক্লাস কীভাবে করবেন তা নিয়েও চিন্তার শেষ ছিল না আর্যার। যদিও শিক্ষক ও সহপাঠীদের সাহায্যে দুটি কাজই তিনি ভালোভাবে করতে পেরেছেন বলে জানান দেশের মধ্যে কনিষ্ঠতম হবু মেয়র।
মেয়র হিসেবে মনোনীত হওয়া আর্যার রাজনীতিতে রোল মডেল কেরলের স্বাস্থ্যমন্ত্রী কেকে শৈলজা। কোভিড প্যান্ডামিকে কেরলের স্বাস্থ্যমন্ত্রীর কাজ তাঁকে প্রবলভাবে উদ্বুদ্ধ করেছে বলে জানান আর্যা। তাঁর কথায়, দল দায়িত্ব দিয়েছে মানুষের স্বার্থ রক্ষা কাজ করার, কমিউনিস্ট আদর্শ মেনে আমি প্রশাসনিক কাজ পরিচালনা করব। তিনি আরও যোগ করেন, পুর প্রশাসনে আমি নতুন। অভিজ্ঞ সদস্যদের কাজ থেকে অনেক কিছু শিখব।
রাজনৈতিক মহলের মত, নতুন মুখদের কেরল সিপিএম এগিয়ে আনার পাশাপাশি তাঁদের উপর বিশ্বাস করে যে বড় দায়িত্বভার তুলে দিচ্ছে তা এক উল্লেখযোগ্য দৃষ্টান্ত।

Comments
Loading...