চতুর্থ দফায় কোচবিহারের ৯ আসনে ভোট, ২০১৬ ও ২০১৯ সালে কী ফল ছিল?

চতুর্থ দফায় ভোট হবে উত্তরবঙ্গের কোচবিহার আর আলিপুরদুয়ার জেলায়। কোচবিহারের মোট ৯টি বিধানসভা কেন্দ্র। সবকটি আসনেই ভোট। এই জেলায় ৭০ জন প্রার্থীর ভাগ্য নির্ধারণ হবে। মেখলিগঞ্জ, মাথাভাঙা, কোচবিহার উত্তর, কোচবিহার দক্ষিণ, শীতলকুচি, সিতাই, দিনহাটা, নাটাবাড়ি, তুফানগঞ্জ আসনে ভোট।

এই আসনগুলিতে ১৬-র বিধানসভা আর ১৯ এর লোকসভায় কী ফল ছিল?

মেখলিগঞ্জ বিধানসভায় তৃণমূল প্রার্থী অর্ঘ রায় প্রধান (৭৪,৮২৩) ফরওয়ার্ড ব্লকের পরেশ অধিকারীকে ৬,৬৩৭ ভোটে হারান।
এই কেন্দ্রে এবার পরেশ অধিকারীকে প্রার্থী করেছে তৃণমূল। আর সংযুক্ত মোর্চা সমর্থিত ফরওয়ার্ড ব্লক প্রার্থী রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী গোবিন্দ রায়। বিজেপি প্রার্থী দধিরাম রায়।

মাথাভাঙ্গা কেন্দ্রে ২০১৬ সালের বিধানসভায় জয়ী হন তৃণমূলের বিনয়কৃষ্ণ বর্মন। দ্বিতীয় স্থানে ছিল সিপিএম। ২০১৯ লোকসভা ভোটের বিধানসভাওয়ারি ফল অনুযায়ী এগিয়ে বিজেপি।

এই কেন্দ্রে তৃণমূলের হয়ে লড়ছেন গিরীন্দ্রনাথ বর্মণ। বিজেপির সুশীল বর্মণ। সিপিএম প্রার্থী অশোক বর্মণ।

২০১৬ সালে কোচবিহার উত্তর কেন্দ্রে জয় পান ফরওয়ার্ড ব্লক প্রার্থী নগেন্দ্রনাথ রায়। দ্বিতীয় স্থানে ছিল তৃণমূল। বহু পিছিয়ে ছিল বিজেপি। ২০১৯ লোকসভা ভোটের বিধানসভাওয়াড়ি ফল অনুযায়ী এই কেন্দ্রে এগিয়ে বিজেপি।
এবারের ভোটে তৃণমূল প্রার্থী বিনয়কৃষ্ণ বর্মণ। বিজেপির তরফে সুকুমার রায়। এই কেন্দ্রের বিদায়ী বিধায়ক ফরওয়ার্ড ব্লকের নগেন্দ্রনাথ রায় এই ভোটেও লড়াইয়ে নেমেছেন।

২০১৬ সালে কোচবিহার দক্ষিণ কেন্দ্রে জয় পান তৃণমূল প্রার্থী মিহির গোস্বামী। বর্তমানে তিনি বিজেপিতে। দ্বিতীয় স্থানে ফরওয়ার্ড ব্লক। ২০১৯ লোকসভা ভোটের বিধানসভাওয়াড়ি ফলের হিসেবে এগিয়ে বিজেপি।
এই কেন্দ্রে তৃণমূল কংগ্রেসের তরফে লড়ছেন অভিজিৎ দে ভৌমিক (হিপ্পি)। বিজেপির নিখিলরঞ্জন দে। ফরওয়ার্ড ব্লক প্রার্থী অক্ষয় ঠাকুর।

শীতলকুচি বিধানসভায় ২০১৬ সালে জয়ী হন তৃণমূলের হিতেন বর্মন। দ্বিতীয় স্থানে ছিল সিপিএম। ২০১৯ লোকসভা ভোটের বিধানসভাওয়াড়ি ফলে এই কেন্দ্রে এগিয়ে তৃণমূল।
এবার তৃণমূল প্রার্থী করেছে জেলা সভাপতি তথা প্রাক্তন সাংসদ পার্থপ্রতিম রায়কে। বিজেপির হয়ে দাঁড়িয়েছেন বরেণচন্দ্র বর্মন। সিপিএম প্রার্থী সুধাংশু প্রামাণিক।

২০১৬ সালে সিতাই কেন্দ্রে জয় পান তৃণমূলের জগদীশ বর্মা বসুনিয়া। কংগ্রেসের কেশব রায় দ্বিতীয়। ২০১৯ লোকসভা ভোটের বিধানসভাওয়াড়ি ফল অনুযায়ী এগিয়ে তৃণমূল।
একুশের ভোটে তৃণমূল প্রার্থী জগদীশচন্দ্র বর্মা বাসুনিয়া। বিজেপির তরফে দাঁড়িয়েছেন দীপককুমার রায়। কংগ্রেসের টিকিটে লড়ছেন কেশবচন্দ্র রায়।

দিনহাটা কেন্দ্রে এর আগের বিধানসভা ভোটে জিতেছিলেন তৃণমূল প্রার্থী উদয়ন গুহ। দ্বিতীয় ফরওয়ার্ড ব্লক। ২০১৯ লোকসভা ভোটের বিধানসভাওয়াড়ি ফল অনুযায়ী এগিয়ে বিজেপি।
এবারও উদয়ন গুহ লড়ছেন তৃণমূলের টিকিটে। আইএসএফের প্রার্থী আবদুর রউফ। বিজেপির নিশীথ প্রামাণিক কোচবিহার লোকসভা কেন্দ্রের সাংসদও। ২০১৯ এর লোকসভা ভোটের আগে তিনি বিজেপিতে যোগ দেন।

২০১৬ সালে নাটাবাড়ি কেন্দ্রে জয় পান তৃণমূলের রবীন্দ্রনাথ ঘোষ। সিপিএমের তামসের আলি দ্বিতীয় স্থানে ছিলেন। ২০১৯ লোকসভা ভোটের বিধানসভাওয়াড়ি ফলের হিসেবে এগিয়ে বিজেপি।
এবার বিজেপির হয়ে লড়ছেন মিহির গোস্বামী। রবীন্দ্র নাথ ঘোষের ওপর ভরসা রেখে তাকেই প্রার্থী করেছে তৃণমূল। সিপিএম প্রার্থী আকিক হাসান।

কোচবিহার জেলার শেষ বিধানসভা কেন্দ্র তুফানগঞ্জ। ২০১৬ সালে তুফানগঞ্জে জেতেন তৃণমূল প্রার্থী ফজলে করিম মিয়া। দ্বিতীয় কংগ্রেস। বহু পিছিয়ে বিজেপি। ২০১৯ লোকসভা ভোটের বিধানসভাওয়াড়ি ফলে এই কেন্দ্রে এগিয়ে যায় বিজেপি।
এবার তৃণমূল প্রার্থী প্রণব কুমার দে (মানিক)। বিজেপি প্রার্থী মালতি রাভা রায়। কংগ্রেসের রবিন রায়।

কোচবিহার জেলার ৯ টি বিধানসভা আসনের মধ্যে ২০১৬ সালে ৮ টি আসনে তৃণমূল এবং ১ টি আসনে সিপিএম এগিয়েছিল। কিন্তু ২০১৯ লোকসভার ফলে সব হিসেব উল্টেপাল্টে যায়। ২০১৯ লোকসভা ভোটের বিধানসভাওয়াড়ি ফল অনুযায়ী কোচবিহার জেলায় বিজেপি এগিয়ে ৭ টি কেন্দ্রে। তৃণমূল এগিয়ে ২ টি আসনে।

Comments
Loading...