‘ইয়ে ডর হামে আচ্ছা লাগা!’… অমিত শাহকে কেন বললেন অভিষেক?

একুশের ভোটে ২৫০ এর বেশি আসন পেয়ে তৃতীয়বারের জন্য সরকার তৈরী করবেন মমতা ব্যানার্জি। দক্ষিণ ২৪ পরগনার কুলপির ঢোলায় জনসভা থেকে ঘোষণা যুব তৃণমূল সভাপতি অভিষেক ব্যানার্জির। পাশাপাশি ‘ভাইপো’ ইস্যুতে অমিত শাহকে কটাক্ষ করে বলেন, দেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আমার নাম নিতে পারছেন না! ভাববাচ্যে কথা বলতে হচ্ছে! তারপরই বলে ওঠেন, ইয়ে ডর হামে আচ্ছা লাগা! তুমুল হাততালির রোল ওঠে ভিড়ে ঠাঁসা সভায়।

তৃণমূলের যুব সভাপতির দাবি আগামী ৫০ বছর তৃণমূল বাংলায় ক্ষমতায় থাকবে।
এদিন একাধিক ইস্যুতে বিজেপিকে আক্রমণ শানান অভিষেক। সদ্য তৃণমূল ত্যাগী নেতা দীনেশ ত্রিবেদীকে নাম না করে কটাক্ষ করে বলেন, তৃণমূলে থাকলে দমবন্ধ হয়ে যাচ্ছে আর বিজেপিতে গেলে তো আইসিউতে চলে যাচ্ছে।

[আরও পড়ূন- স্বাস্থ্য সাথীর জন্য পৃথক ওয়ার্ড করলে সম্প্রসারণে বাড়তি সুবিধার ঘোষণা পুরসভার] 

অভিষেকের অভিযোগ, দিলীপ ঘোষ ইন্ডিয়া টুডে কনক্লেভে গিয়ে দেবী দুর্গাকে নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করেছেন। এদিনের বক্তব্যে ভিক্টোরিয়াতে মুখ্যমন্ত্রীর উপস্থিতিতে জয় শ্রী রাম ধ্বনি নিয়েও বিজেপিকে একহাত নেন তিনি। অভিষেকের চ্যালেঞ্জ, তৃণমূল ক্ষমতায় এলে জয় শ্রীরাম নয় বিজেপিকে দিয়ে জয় সিয়া রাম বলিয়ে ছাড়বেন। অভিষেকের দাবি, বিজেপি মহিলাদের সম্মান দেয় না। তাই শুধু রামের নামে জয়ধ্বনি দেয়। বাংলা বিজেপিকে মহিলাদের সম্মান করা শেখাবে। তাঁর কথায়, বিজেপিকে বলিয়ে ছাড়ব জয় সিয়া রাম।

বিজেপির সোনার বাংলা গড়ার দাবির পালটা উত্তর দিয়েছেন তৃণমূল সাংসদ অভিষেক। বলেন, বিজেপি শাসিত উত্তরপ্রদেশ, মধ্যপ্রদেশকে আগে সোনার করে দেখান, তারপর বাংলায় নজর দেবেন।

একাধিক জনসভা থেকে বিজেপি নেতৃত্ব দাবি করছেন কেন্দ্রে রাজ্যে ডবল ইঞ্জিন সরকার থাকলে তবেই বাংলার উন্নয়ন হবে। অভিষেকের কটাক্ষ ডবল ইঞ্জিন সরকার এলে চুরি করতে সুবিধা হবে! পাশাপাশি তাঁর কটাক্ষ, মমতা ব্যানার্জির একটা ইঞ্জিন সামলাতেই ৫০০ ইঞ্জিন নামাতে হয়েছে বিজেপিকে। যুব তৃণমূল সভাপতির অভিযোগ, সিএএ নিয়েও মতুয়াদের বিভ্রান্ত করেছে বিজেপি। কুলপির জনসভা থেকে ডায়মন্ড হারবারের সাংসদের ঘোষণা, এ লড়াই মমতা ব্যানার্জিকে মুখ্যমন্ত্রী করার লড়াই নয়, এ লড়াই বাংলা থেকে বহিরাগতদের উৎখাত করার লড়াই।

Comments
Loading...