মিথ্যে, কুরুচিকর অভিযোগ, শুভেন্দুকে আইনি নোটিস অভিষেকের, ৩৬ ঘণ্টার মধ্যে চাইতে হবে ক্ষমা

অভিষেক-শুভেন্দুর তরজা কি এবার আদালতের চৌকাঠে?

অভিষেক ব্যানার্জির নামে ভিত্তিহীন, মিথ্যে, মর্যাদাহানিকর ও কুরুচিকর অভিযোগের প্রেক্ষিতে এবার আইনি নোটিস পেলেন শুভেন্দু অধিকারী। 

গত ১৯ জানুয়ারি খেজুরির সভা এবং তারপর ABP Ananda এর সাক্ষাৎকারে অভিষেক ব্যানার্জির বিরুদ্ধে বিভিন্ন অভিযোগ করেন সদ্য বিজেপিতে যোগ দেওয়া শুভেন্দু। অভিষেকের আইনজীবী নোটিসে শুভেন্দুকে ৩৬ ঘণ্টা সময় দিয়েছেন। তার মধ্যে নিঃশর্ত ক্ষমাপ্রার্থনা না করলে আদালতের সম্মুখীন হতে হবে শুভেন্দু অধিকারীকে। 

শুভেন্দুর বিরুদ্ধে মূলত ৪ টি অভিযোগ এনেছেন ডায়মন্ড হারবারের সাংসদ। প্রথমত অভিষেক ব্যানার্জিকে তোলাবাজ বলে দাবি করেছেন শুভেন্দু। দ্বিতীয়ত অভিষেককে গরু, বালি এবং কিডনি পাচারকারী হিসেবে উল্লেখ করেছেন শুভেন্দু। তৃতীয়ত, শুভেন্দু দাবি করেছেন অভিষেক ব্যানার্জি একজন ব্যর্থ রাজনীতিবিদ। ডায়মন্ড হারবারে অন্যদের সাহায্যে জিতেছেন। চতুর্থত, জেলবন্দী কে ডি সিংহের সঙ্গে অভিষেকের সম্পর্ক নিয়ে নানা অভিযোগ করেছেন শুভেন্দু অধিকারী। 

অভিষেক ব্যানার্জির আইনজীবী শুভেন্দুকে এই অভিযোগের প্রমাণ দিতে বলেছেন। নোটিস প্রাপ্তির ৩৬ ঘণ্টার মধ্যে উত্তর দিতে বলা হয়েছে বিজেপি নেতা শুভেন্দুকে। 

আইনি নোটিসে সারদা কর্তা সুদীপ্ত সেনের লেখা চিঠিতে শুভেন্দুর বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগ করা হয়েছিল। সেই অভিযোগনামাও পাঠানো হয়েছে। পাশাপাশি নারদ কাণ্ডে শুভেন্দুর ফুটেজও অ্যাটাচ করেছেন।

Comments
Loading...