সম্ভবত নেই রাহুল, ব্রিগেডে কংগ্রেসের বক্তা অধীরের সঙ্গে ছত্তিসগড়ের মুখ্যমন্ত্রী বাঘেল

যুব কংগ্রেস থেকে রাজনৈতিক জীবন শুরু করে বাঘেল বর্তমানে অল ইন্ডিয়া কংগ্রেস কমিটির সদস্য

২৮ তারিখ ব্রিগেড সমাবেশে বামেদের জোট সঙ্গী কংগ্রেসের বক্তা নিয়ে জল্পনা চলছিল কয়েকদিন ধরে। রাহুল গান্ধীকে ব্রিগেডে আনার পরিকল্পনা ছিল, তবে কেরালায় পরিবর্তিত রাজনৈতিক সমীকরনের জেরে সম্ভবত রাহুল ব্রিগেডে উপস্থিত থাকছেন না। এই পরিস্থিতিতে রাহুলের পরিবর্তে প্রিয়াঙ্কা গান্ধীকে আনার কথা হচ্ছিল। সূত্রের খবর, তিনিও সম্ভবত থাকছেন না।

একুশের ভোটের মুখে বাম-কংগ্রেসের জোটের এই হাইভোল্টেজ জনসভাকে দু’দলই বাড়তি গুরুত্ব দিচ্ছে। কংগ্রেসের তরফ থেকে বক্তা হিসেবে প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর চৌধরীর নাম একপ্রকার স্থির। অধীরের মতোই ঝাঁঝালো বক্তব্য রাখতে পারেন এমন একজন হেভিওয়েটের খোঁজে ছিল প্রদেশ কংগ্রেস। জানা যাচ্ছে, এবারে ব্রিগেডে কংগ্রেসের তরফে অপর বক্তা হিসেবে থাকছেন ছত্তিশগড়ের মুখ্যমন্ত্রী ভুপেশ বাঘেল।

[আরও পড়ুন- ব্রিগেডে একমাত্র মহিলা বক্তা দেবলীনা হেমব্রম?]

জ্বালাময়ী বক্তব্য রাখার পাশাপাশি বাঘেল কংগ্রেস রাজনীতিতে উজ্জ্বল এক নাম। বাঘেল-এর আগে ছত্তিশগড়ের প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি ছিলেন। পাঁচ বারের বিধায়ক। নব্বইয়ের দশকে অবিভক্ত মধ্যপ্রদেশে দিগ্বিজয় সিংহ এর মন্ত্রিসভার সদস্য ছিলেন।

যুব কংগ্রেস থেকে রাজনৈতিক জীবন শুরু করে বাঘেল বর্তমানে অল ইন্ডিয়া কংগ্রেস কমিটির সদস্য। ১৯৯৩ সালে পতন কেন্দ্র থেকে জয়ী হয়ে প্রথম মধ্যপ্রদেশ বিধানসভার সদস্য হন। মধ্যপ্রদেশ এবং ছত্তিসগড়ের গ্রামীণ এলাকায় বাঘেলের বক্তৃতার কদর বিশাল। স্পষ্ট কথা বলতে বাঘেল সিদ্ধহস্ত, এমনটাই বলেন তাঁর অনুগামীরা।
সবমিলিয়ে কংগ্রেসের তরফে অধীরের সঙ্গে ভুপেশ বাঘেলের জোড়া আক্রমণের সাক্ষী থাকতে চলছে ২৮ এর ব্রিগেড।

Comments
Loading...