গত বছরে বিজেপির আয় ১০২৭ কোটি টাকা, দু’নম্বর সিপিএমের আয় ১০০ কোটি, তৃণমূলের আয় ৫ কোটি, হিসেব জমা দেয়নি কংগ্রেস, রিপোর্ট এডিআর-এর

২০১৭ ও ২০১৮ আর্থিক বর্ষে আয়ের নিরিখে দেশের এক নম্বর দল বিজেপি। এই বছরে বিজেপির আয় হয়েছে ১ হাজার কোটি টাকার কিছু বেশি। যে সব দল তাদের আয়ের হিসেব জমা করেছে তার মধ্যে দু’নম্বরে রয়েছে সিপিএম। সিপিএমের আয় ১০০ কোটি টাকার সামান্য বেশি। তবে এই আর্থিক বছরে অধিকাংশ দলেরই আয় আগের বছরের তুলনায় কমেছে। অ্যাসোসিয়েশন ফর ডেমোক্রেটিক রিফর্মস (এডিআর) দেশের রাজনৈতিক দলগুলির আয়-ব্যয়ের যে হিসেব প্রকাশ করেছে তাতে এই তথ্য সামনে এসেছে। যদিও কংগ্রেস এখনও তাদের আয়ের হিসেব জমা দেয়নি।
সোমবার এডিআর-এর পক্ষ থেকে বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের জমা দেওয়া অডিট রিপোর্টের একটি তুলনামূলক পরিসংখ্যান প্রকাশ করা হয়েছে। বিজেপি, সিপিএম, বহুজন সমাজ পার্টি (বিএসপি) , ন্যাশনালিস্ট কংগ্রেস পার্টি, সিপিআই, তৃণমূল কংগ্রেসসহ কিছু দল রয়েছে এই তালিকায়।
অডিট অনুযায়ী, ২০১৭-১৮ আর্থিক বছরে বিজেপির মোট আয় সবচেয়ে বেশি। ২০১৭-১৮ আর্থিক বছরে বিজেপি তাদের আয় দেখিয়েছে ১০২৭.৩৩৯ কোটি টাকা।
খরচ করেছে মোট আয়ের ৭৪ শতাংশ টাকা (৭৫৪.৪৭ কোটি টাকা)। আয়ের নিরিখে বিজেপির পরেই রয়েছে সিপিএম। তাদের এই আর্থিক বর্ষে আয় ১০৪.৮৪৭ কোটি টাকা এবং খরচ হয়েছে ৮৩.৪৮২ কোটি টাকা। তারপরে এই তালিকায় রয়েছে বিএসপি। তাদের আয় ৫১.৬৯৪ কোটি টাকা। খরচ করেছে আয়ের ২৯ শতাংশ । অর্থাৎ, ১৪ কোটি ৭৮ লক্ষ টাকা।
পশ্চিমবঙ্গে শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেসের এই আর্থিক বছরে আয় ৫.১৬৭ কোটি টাকা। খরচ হয়েছে ১.৭৬৬ কোটি টাকা। সিপিআইয়ের আয় ১.৫৫৩ কোটি টাকা। খরচ করেছে ১.১০ কোটি টাকা।
অন্যদিকে, ন্যাশনালিস্ট কংগ্রেস পার্টি(এনসিপি) একমাত্র দল, যে এই আর্থিক বর্ষে আয়ের চেয়ে ব্যয় করেছে বেশি। তাদের আয় হয়েছে ৮ কোটি ১৫ লক্ষ টাকা, খরচ করেছে ৮ কোটি ৮৪ লক্ষ টাকা।
২০১৬-১৭ আর্থিক বছরের তুলনায় ২০১৭-১৮ আর্থিক বর্ষে বিজেপির আয় কমেছে ৬.৯৩ কোটি টাকা। যে ৬টি জাতীয় দলের আয়ের হিসেব এডিআর প্রকাশ করেছে তা সিংহভাগই তারা পেয়েছে অনুদান ও কর্মীদের চাঁদা থেকে (৮৬.৯১ শতাংশ)।
আর্থিক স্বচ্ছতা বজায় রাখতে এবং নির্বাচনকালীন আয়-ব্যায়ের হিসেব রাখতে প্রত্যেক আর্থিক বছরে নির্বাচন কমিশনকে তাদের বার্ষিক আয়-ব্যয়ের খতিয়ান দেয় রাজনৈতিক দলগুলি। অন্যদিকে, ধার্য সময় পেরিয়ে গেলেও এখনও পর্যন্ত নিজেদের হিসেব জমা দেয়নি জাতীয় কংগ্রেস।

Comments
Loading...