মুক্তির পর ফের জেলে পাঁশকুড়ার আনিসুর, তমলুক আদালতের রায় খারিজ হাইকোর্টে

রেহাই পাওয়ার কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই ফের গ্রেফতার হয়ে গেলেন তৃণমূল নেতা খুনে অভিযুক্ত বিজেপি নেতা আনিসুর রহমান। মঙ্গলবার আনিসুর রহমানের মামলা প্রত্যাহারের নির্দেশ খারিজ হয়ে যায় কলকাতা হাইকোর্টে। তমলুক আদালতের নির্দেশকে খারিজ করে দিয়ে কলকাতা হাইকোর্ট জানায়, এভাবে ইচ্ছেমতো সিদ্ধান্ত নেওয়া যায় না। পুলিশকে নির্দেশ দেয় হাইকোর্ট, ফের গ্রেফতার করতে হবে আনিসুর রহমানকে।

এদিন তমলুক আদালত আনিসুরের মামলা প্রত্যাহারের নির্দেশের পরই ছাড়া পেয়ে যান আনিসুর। অনুগামীদের তুমুল উচ্ছ্বাসের মধ্যে তমলুক হাসপাতাল থেকে বাড়ির উদ্দেশ্যে রওনা দেন তিনি। কিন্তু ঘণ্টা দেড়েকের মধ্যেই ফের গ্রেফতার করা হয় তাঁকে।

[আরও পড়ুন- আজই বিজেপিতে তৃণমূলের জিতেন্দ্র তিওয়ারি?]

২০১৯ সালে পাঁশকুড়ার মাইশোরায় নিজের কার্যালয়ে গুলিবিদ্ধ হন তৃণমূল নেতা কুরবান আলি শা। খুনে জড়িত থাকার অভিযোগে গ্রেফতার হন বিজেপি নেতা আনিসুর। তমলুক আদালতে তাঁর মামলার শুনানি চলে। খুনের পাশাপাশি অস্ত্র আইনেও মামলা চলে আনিসুরের বিরুদ্ধে। হাইকোর্টে জামিনের আবেদন করেন আনিসুরের পরিবার। এরআগে রাজ্য সরকারের তরফে মামলা প্রত্যাহারের নির্দেশিকা দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু নিম্ন আদালতের সিদ্ধান্ত খারিজ করে দেয় উচ্চ আদালত।

পূর্ব মেদিনীপুর জেলার রাজনীতিতে শুভেন্দু-আনিসুরের দ্বন্দ্ব বহু পুরনো। শুভেন্দুর অঙ্গুলিহেলনেই আনিসুর গ্রেফতার হন বলেও অভিযোগ আনিসুরের অনুগামীদের। এবার শুভেন্দু বিজেপিতে যোগ দেওয়ায় জেলবন্দি আনিসুর রহমানকে বের করে আনতে তৎপর হয় স্থানীয় তৃণমূল নেতৃত্ব। নন্দীগ্রামের সভা থেকে মমতা ব্যানার্জিও আনিসুরের পক্ষ নিয়ে কথা বলেন।

Comments
Loading...