১৮ জন ভোট দিতে আসতেন না! জহর সরকারকে বিজেপির ওয়াকওভার ইস্যুতে শুভেন্দুকে খোঁচা কুণালের

রাজ্যসভার লড়াইয়ে বিজেপি প্রার্থী দেয়নি। বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী নিজে ট্যুইট করে একথা ঘোষণা করেছিলেন। কিন্তু তাঁদের এই প্রার্থী না দেওয়ার নেপথ্য কারণ হিসেবে বিস্ফোরক দাবি করলেন তৃণমূলের রাজ্য সম্পাদক তথা মুখপাত্র কুণাল ঘোষ।

শুক্রবার ট্যুইটে কুণাল প্রথমে জহর সরকারকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন। তারপর চাঞ্চল্যকর দাবি, বিজেপি যে হার নিশ্চিত জেনে প্রার্থী দেননি এমনটা নয়। বিজেপির প্রার্থী না দেওয়ার মূল কারণ ভোট ভাঙার ভয়। অর্থাৎ বিজেপি রাজ্যসভার সাংসদের জন্য প্রার্থী দিলেও দলেরই অত্যন্ত ১৮ জন বিধায়ক ভোটদানে অংশগ্রহণ করতে না। এমনকী দু’তিন জন ভুল ভোটও দিতেন বলে ট্যুইটারে লেখেন কুণাল। নন্দীগ্রামের বিধায়ককে এদিন ফের সীমাহীন সুবিধাবাদী বলে তোপ দেগে কুণাল বলেন, বিজেপি বিধায়কদের অনেকেই শুভেন্দুকে মানেন না।

রাজনৈতিক শিবিরের একাংশের মতে, কুণাল কৌশলে দলবদলের ইস্যুকে উসকে দিয়েছেন। তৃতীয়বার সরকার গড়ার পরে তৃণমূল নেতৃত্বের একাংশ দাবি করে এসেছেন বিজেপির অত্যন্ত ১৭ থেকে ১৮ জন বিধায়ক তৃণমূলের সঙ্গে যোগাযোগ রাখছেন। তাঁরা বিজেপি ত্যাগ করতে আগ্রহী।

Comments
Loading...