হিন্দু শরণার্থীদের দেশ ছাড়তে হবে না, আশ্বস্ত করলেন অমিত শাহ, বিজেপিতে যোগ দিলেন সব্যসাচী দত্ত

এনআরসি নিয়ে দল ও কেন্দ্রীয় সরকারের অবস্থান স্পষ্ট করলেন বিজেপি সভাপতি তথা কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। বললেন, হিন্দু, বৌদ্ধ, জৈন, ক্রিশ্চান শরণার্থীদের কোনও চিন্তা নেই। সবাইকে সিটিজেনশিপ অ্যামেন্ডমেন্ট বিলের মাধ্যমে ভারতের নাগরিকত্ব দেওয়া হবে। তবে মুসলিমদের কথা একবারও উচ্চারণ করেননি অমিত শাহ। বরং বললেন, একজন শরণার্থী যাতে দেশের প্রধানমন্ত্রী হওয়ার স্বপ্ন দেখতে পারেন, তা নিশ্চিত করবে বিজেপি। এ প্রসঙ্গে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দিকেও আক্রমণ শানান অমিত শাহ। বলেন, এনআরসি নিয়ে মিথ্যাচার করছেন মমতা।

রাজ্যে কি এনআরসি হবে? তা নিয়ে রাজ্য বিজেপির অন্দরেই প্রবল বিভ্রান্তি। রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ একবার বলছেন, দু’কোটি মানুষের নাম বাদ যাবে, আবার কখনও বলছেন, একজন হিন্দুরও নাম বাদ যাবে না। উদ্বেগ আরও বাড়িয়েছে অসম এনআরসিতে ১৯ লক্ষ মানুষের নাম বাদ যাওয়ার ঘটনা। এর ফলে তৈরি হয়েছে এক প্রবল বিভ্রান্তি। রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায় এনআরসি বিভ্রান্তিতে একাধিক মানুষের প্রাণও গিয়েছে। তাই ড্যামেজ কন্ট্রোলে এবার খোদ কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে হাজির করল বিজেপি। আর নেতাজি ইন্ডোরে দাঁড়িয়ে, অমিত শাহের দাওয়াই, বিজেপি কর্মীরা মানুষের বাড়ি বাড়ি গিয়ে বোঝান, একজন হিন্দুকেও দেশ ছাড়া করা হবে না। তাঁর হুঙ্কার, এনআরসি হবে না বলে মমতা যতোই বলুন, দেশে একজনও অনুপ্রবেশকারীকে থাকতে দেব না। প্রত্যেক বেআইনি শরণার্থীকে খুঁজে বের করব। তবে তা এনআরসির মাধ্যমেই করা হবে কিনা তা স্পষ্ট করেননি কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

এদিন বেআইনি শরণার্থীদের নিয়ে বলতে গিয়ে পুরনো প্রসঙ্গ টেনে আনেন অমিত শাহ। বলেন, একটা সময় ছিল যখন শরণার্থীদের বিরোধিতা করে সংসদ অচল করে দিয়েছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কারণ তখন শরণার্থীরা সিপিএমের ভোট ব্যাঙ্ক ছিল। আজ খেলা ঘুরে গিয়েছে বলেই মমতা দিদি শরণার্থীদের পক্ষ নিচ্ছেন।

পাশাপাশি এদিন অমিত শাহ বলেন, ২০২১ সালের নির্বাচনে বাংলায় মোদীজির নেতৃত্বে বিজেপি সরকার তৈরি হবে। শুরু হবে সোনার বাংলা বানানোর কার্যক্রম। এদিনই অনুষ্ঠান মঞ্চে তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দেন বিধাননগরের প্রাক্তন মেয়র তথা বিধায়ক সব্যসাচী দত্ত। তাঁর সঙ্গে ছিলেন দুজন কাউন্সিলর। বিজেপিতে যোগ দিয়ে সব্যসাচী অমিত শাহকে বলেন, কাশ্মীরকে যেভাবে ঠান্ডা করেছেন, বাংলাকেও সেভাবেই ঠান্ডা করে দিন।

Comments
Loading...